টি-টোয়েন্টিতেও হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগেই দুই থেকে তিন উইকেট হারানো বাংলাদেশের নিয়মিত চিত্র। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পুরো সিরিজেই ব্যাটিং ব্যর্থতার বৃত্তে আটকে ছিল নিগার সুলতানা জ্যোতির দল। ওয়ানডেতে কোন ম্যাচে একশ পার করতে না পারলেও টি-টোয়েন্টির প্রথম দুই ম্যাচেই ছাড়িয়ে গেছে একশ। যদিও একটিতেও জিততে পারেনি বাংলাদেশের মেয়েরা। প্রথম দুই টি-টোয়েন্টিতে একশ ছাড়িয়ে গেলেও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ করতে পেরেছে মাত্র ৭৮ রান, হারতে হয়েছে ৭৭ রানে। ব্যাটিং ব্যর্থতায় আগেই সিরিজ হেরে যাওয়া টাইগ্রেসরা এবার হলো হোয়াইটওয়াশ। টি-টোয়েন্টির আগে ওয়ানডে সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ হয়েছেন জ্যোতিরা।

মিরপুরে জয়ের জন্য ১৫৬ রান তাড়ায় ইনিংসের প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মেগান শুটের অফ স্টাম্পে পড়ে বেরিয়ে যাওয়া ডেলিভারিতে কভারের উপর দিয়ে খেলতে চেয়েছিলেন মুর্শিদা খাতুন। তবে টাইমিংয়ে গড়বড় হওয়ায় পয়েন্টে থাকা এলিস পেরির হাতে ক্যাচ দিয়েছেন বাঁহাতি এই ওপেনার। মুর্শিদা সাজঘরে ফিরেছেন মাত্র ১ রানে। তিনে নেমে সুবিধা করতে পারেননি রিতু মনি। টাইলা ভ্ল্যামিংকের অফ স্টাম্পের বাইরের ইয়র্কার লেংথের ডেলিভারিতে গালি দিয়ে খেলতে চেয়েছিলেন ডানহাতি এই ব্যাটার।

প্রথম স্লিপে দাঁড়িয়ে বেথ মুনি দারুণ এক ক্যাচ লুফে নিলে ১০ রানে ফিরতে হয় রিতুকে। পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগে আউট হয়েছেন স্বর্ণা আক্তারও। পেরির অফ স্টাম্পের বাইরে পড়ে বেরিয়ে যাওয়া ডেলিভারিতে ড্রাইভ করতে গিয়ে গালিতে থাকা সোফি মোলিনিউয়ের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন তরুণ এই ব্যাটার। তিন বল খেলা স্বর্ণা রানের খাতাই খুলতে পারেননি। ১৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে আবারও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ।

পাওয়ার প্লেতে ৩ উইকেট হারিয়ে মাত্র ২৬ রান তোলে স্বাগতিকরা। এদিকে বোলিংয়ে এসে নিজের প্রথম ওভারেই উইকেট তুলে নেন অ্যাশলে গার্ডনার। ডানহাতি এই অফ স্পিনারের অফ স্টাম্পের অনেকটা বাইরের লেংথ ডেলিভারিতে খোঁচা দিতে গিয়ে উইকেটকিপার হিলির গ্লাভসে ক্যাচ দিয়েছেন দিলারা আক্তার। তরুণ এই ওপেনার বেশ খানিকটা সময় টিকে থাকলেও ১২ রানের বেশি করতে পারেননি। আরেক স্পিনার জর্জিয়া ওয়ারহামও উইকেট নিয়েছেন প্রথম ওভারেই।

ডানহাতি এই লেগ স্পিনারের গুড লেংথ ডেলিভারিতে ব্যাকফুটে খেলতে গিয়ে বলের লাইন মিস করে বোল্ড হয়েছেন রাবেয়া খান। তরুণ এই ব্যাটার ফিরেছেন ১ রানে। সাধারণত টপ অর্ডারে ব্যাটিং করলেও জ্যোতি এদিন ব্যাটিংয়ে এসেছেন যখন ৩৬ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ ধুঁকছে। ব্যর্থতার পাল্লা ভারী করেছেন ফাহিমা খাতুন, শরিফা খাতুনরা। শেষদিকে জ্যোতির ৩২ রান কেবল হারের ব্যবধানই কমিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে তিনটি উইকেট নিয়েছেন ভ্ল্যামিংক।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে শুরুটা ভালো করেন ‍হিলি এবং মুনি। উদ্বোধনী জুটিতে তারা দুজনে যোগ করেন ৩৯ রন। পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগে তাদের জুটি ভাঙেন শরিফা খাতুন। ডানহাতি এই অফ স্পিনারের গুড লেংথ ডেলিভারিতে উইকেট থেকে বেরিয়ে এসে খেলতে চেয়েছিলেন মুনি। তবে ব্যাটে-বলে করতে না পারায় ১০ রান করা মুনিকে স্টাম্পিং করেন জ্যোতি।

শুরু থেকেই ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ছিলেন হিলি। বাংলাদেশের বোলারদের ওপর তাণ্ডব চালানো অজি অধিনায়ক ফিরেছেন ২৯ বলে ৪৫ রানের ইনিংস খেলে। ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন পেরি এবং গার্ডনার। জর্জিয়া ওয়ারহামও সুবিধা করতে পারেননি। দলের রান একশ হওয়ার আগে ৫ উইকেট হারালেও শেষ দিকে তাহলিয়া ম্যাকগ্রার অপরাহিত ৪৪ এবং গ্রেস হ্যারিসের ১৯ রানের সুবাধে ১৫৫ রানের পুঁজি পায় অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশের হয়ে তিনটি উইকেট নিয়েছেন স্পিনার নাহিদা আক্তার।

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.