গাজায় ত্রাণকর্মীদের হত্যাকাণ্ড ‘বিবেকবিবর্জিত’: গুতেরেস

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার অভুক্ত মানুষদের খাদ্য সহায়তা দিতে যাওয়া আন্তর্জাতিক ত্রাণকর্মীদের হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। তিনি বলেছেন, এটি একটি বিবেকবিবর্জিত কাজ। তবে যেভাবে গাজা যুদ্ধ পরিচালনা করা হচ্ছে এটি তার অবশ্যম্ভাবী ফলাফল।

গত সোমবার রাতে গাজার দেইরাল বালাহ এলাকায় ‘ওয়ার্ল্ড সেন্ট্রাল কিচেন’ নামক একটি পশ্চিমা ত্রাণ সংস্থার গাড়িতে ভয়াবহ বিমান হামলা চালায় ইসরাইলি সেনারা। এ ঘটনায় সাত ত্রাণকর্মী নিহত হন যারা অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, ফিলিস্তিন, পোল্যান্ড, আমেরিকা ও কানাডার নাগরিক।

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের ফলে গাজায় নিহত ত্রাণকর্মীর সংখ্যা ১৯৬ জনে পৌঁছেছে যাদের মধ্যে আমাদের জাতিসংঘের কর্মীই রয়েছেন ১৭৫ জন। এই ঘটনায় আবারও গাজা উপত্যকায় জরুরি ভিত্তিতে মানবিক যুদ্ধবিরতি ঘোষণার প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হয়েছে। একইসঙ্গে জাতিসংঘ মহাসচিব হামাসের হাতে আটক সব ইসরাইলি বন্দির মুক্তি এবং গাজায় অবাধ ত্রাণ তৎপরতা নিশ্চিত করারও আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে, অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের মানবাধিকার পরিস্থিতি বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ প্রতিনিধি ফ্রান্সিসকা আলবানেজ বলেছেন, ইসরাইল এসব ত্রাণকর্মীকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

তিনি এক এক্স পোস্টে বলেন, ইসরাইল কীভাবে অভিযান চালায় সে সম্পর্কে সম্যক অবহিত থাকার কারণে আমার অভিমত হচ্ছে ইসরাইলি সেনারা ইচ্ছাকৃতভাবে ওয়ার্ল্ড সেন্ট্রাল কিচেনের কর্মীদের হত্যা করেছে। আলবানেজ আরো বলেন, আন্তর্জাতিক ত্রাণ সংস্থাগুলো যাতে গাজা থেকে তাদের কার্যক্রম গুটিয়ে নেয় এবং গাজাবাসী যাতে অনাহারে মারা যায় সেজন্য এই হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছে। পার্সটুডে

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.