ইসরাইলের সঙ্গে মধ্যস্থতাকারীদের ফলাফল শোনার অপেক্ষায় হামাস

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরাইল এবং ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের প্রতিনিধিদের মধ্যে নতুন ধাপের পরোক্ষ আলোচনা অনুষ্ঠান করতে চলেছে মিশর।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হওয়ার কয়েকদিন পর গাজায় যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার জন্য দেশটির রাজধানী কায়রোতে মিশর, জর্ডান এবং ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা বৈঠক করেন। বৈঠক থেকে তারা গাজায় জরুরি এবং স্থায়ী যুদ্ধবিরতির জন্য যৌথ আহ্বান জানান।

ইসরাইলের এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, কায়রো আলোচনার জন্য তারা একটি প্রতিনিধি দল পাঠাবে। হামাসের একজন কর্মকর্তা অবশ্য রয়টার্সকে বলেছেন, তারা প্রথমে ইসরাইলের সাথে কায়রোর মধ্যস্থতাকারীদের কাছ থেকে আলোচনার ফলাফল শোনার জন্য অপেক্ষা করবেন।

কায়রোতে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতাকালে ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন সেজার্ন বলেছেন, তার সরকার যুদ্ধের “রাজনৈতিক” নিষ্পত্তির জন্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে একটি খসড়া প্রস্তাব পেশ করবে। এই প্রস্তাবে কথিত দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানের কথা বলা হবে।

এদিকে, জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান সাফাদি গাজায় আগ্রাসনের জন্য ইসরাইলকে দায়ী করেছেন। বিশ্বব্যাপী নিন্দা সত্ত্বেও ইসরাইল এই আগ্রাসন অব্যাহত রেখেছে।

সাফাদি বলেন, ইসরাইল যদি সমগ্র বিশ্বকে চ্যালেঞ্জ করে, তাহলে বিশ্বকে এই পাগলামি, হত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞ বন্ধ করতে বাস্তবেএবং কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। পার্সটুডে

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.