আইপিওতে ৬২ হাজার কোটি টাকা সংগ্রহ করবে হুন্দাই মোটর

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে বিশাল অংকের অর্থ সংগ্রহ করতে চায় হুন্দাই মোটর ইন্ডিয়া লিমিটেড। দক্ষিণ কোরিয়ার গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুন্দাই মোটরের ভারতীয় এই ইউনিট ৫৬০ কোটি ডলার (বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ৬২ হাজার কোটি টাকা) সংগ্রহ করার পরিকল্পনা করেছে। চলতি বছরের নভেম্বর নাগাদ আইপিওতে আসবে কোম্পানিটি।

ভারতের পুঁজিবাজারের ইতিহাসে হুন্দাই মোটরের আইপিও হবে সবচেয়ে বড় আইপিও। আর আগের লাইফ ইন্স্যুরেন্স করপোরেশন অব ইন্ডিয়া (এলআইসি) ২০২২ সালে আইপিওর মাধ্যমে সর্বোচ্চ ২৭০ কোটি ডলার সংগ্রহ করেছিল।

খবর ইকোনোমিক টাইমস, বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড (ইন্ডিয়া) ও হিন্দুস্তান টাইমস।

প্রকাশিত খবর অনুসারে, গোল্ডম্যান স্যাক্স, জেপি মর্গান (JP Morgan), মর্গান স্ট্যানলি (Morgan Stanley), সিটি ব্যাংক (Citi bank) এবং ব্যাংক অফ অ্যামেরিকার (Bank of America) মতো বড় বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান হুন্দাইয়ের আইপিওতে অংশ নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। প্রতিষ্ঠানগুলো গত সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে হুন্দাইয়ের সাথে এ নিয়ে বৈঠক করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মনে করছে, ভারতের লোকসভা নির্বাচন শেষ হওয়ার পরে হুন্দাইয়ের আইপিও প্রক্রিয়ায় নতুন গতি সঞ্চার হবে। চলতি বছরের জুনে এ নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে।

আইপিওতে হুন্দাই মোটর ইন্ডিয়া ১৫ থেকে ২০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করতে পারে। কোম্পানিটির মূল্য দাঁড়াতে পারে ৩০ বিলিয়ন ডলার।

হুন্দাই মোটর ১৯৯৬ সালে ভারতে তার কার্যক্রম শুরু করে। ইতোমধ্যে কোম্পানিটি দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম গাড়ি প্রস্তুতকারকে পরিণত হয়েছে। ভারতে বিশাল গাড়ির বাজারের প্রায় ২০ শতাংশ হুন্দাইয়ের দখলে। গত অর্থ বছরে হুন্দাই ভারতে ৫ লাখ ৬৭ হাজার গাড়ি বিক্রয় করেছে।

এটিই একমাত্র বিদেশী কোম্পানি যেটি ভারতীয় গাড়ির বাজারের নেতৃত্বে থাকা মারুতি সুজুকির সাথে প্রতিযোগিতা করছে, যেখানে ফোর্ড মোটর এবং জেনারেল মোটরসের মতো কোম্পানিগুলি ভারতে তাদের ব্যবসা গুটিয়ে নিয়েছে৷

প্রধানত এর ছোট গাড়ির বিস্তৃত পোর্টফোলিও এবং ক্রেতারা কী চায় তা বোঝার কারণে এর জনপ্রিয়তা বেড়েছে। টাটা মোটরসের মতো দেশীয় খেলোয়াড়দের থেকে ক্রমবর্ধমান প্রতিযোগিতা করে বেশ কয়েকটি নতুন SUV এবং লঞ্চ করেছে এওং বৈদ্যুতিক গাড়িও লঞ্চ করেছে হুন্দাই। বিশেষ করে সাশ্রয়ী মূল্যে মানসম্পন্ন এসইউভি বাজারে এনে কোম্পানিটি ভারতের গাড়ির বাজারে আলোড়ন তৈরি করেছে। হুন্দাইয়ের ক্রেটা ও আলকেজার (বাংলাদেশের বাজারে যা ক্রেটা গ্র্যান্ড নামে পরিচিত) ওই সেগমেন্টের গাড়ির বাজারে এখন একচ্ছত্র নেতৃত্ব দিচ্ছে।

স্থানীয় বাজারের পাশাপাশি রপ্তানি বাজারেও নিজস্ব অবস্থান তৈরি করে নিতে পেরেছে হুন্দাই মোটর ইন্ডিয়া লিমিটেড। কোম্পানিটি বর্তমানে ৫০টির বেশি দেশে গাড়ি রপ্তানি করছে। ইতোমধ্যে কোম্পানিটি ১০ লাখের বেশি গাড়ি রপ্তানি করেছে।

বিশ্লেষকরা মনে করছেন টেসলার ভারতীয় বাজারে প্রবেশের খবেরের মাঝেই হুন্দাই এর ইন্ডিয়া ইউনিট আইপিওতে নিয়ে আসার চিন্তা করছে। কারণ এর মাঝেই যদি হুন্দাইয়ের এই ইউনিট যদি ভারতীয় বাজারে তালিকভুক্ত হয়, তবে এটি হুন্দাই কে ভবিষ্যতে ভারতীয় ইভি বাজারে টেসলার সাথে আরও ভালভাবে প্রতিযোগিতা করতে সাহায্য করতে পারে।

কোম্পানিটি বলেছে যে তারা নতুন ইভি (বৈদ্যুতিক গাড়ি), চার্জিং স্টেশন এবং একটি ব্যাটারি প্যাক অ্যাসেম্বলি ইউনিট চালু করতে আগামী দশ বছরে ভারতীয় বাজারে ৪০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা করছে। এ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কোম্পানিটি  সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গাড়ি কোম্পানি জেনারেল মোটর্সের ভারতীয় ইউনিট কিনে নিয়েছে। ভারতের মহারাষ্ট্রে অবস্থিত এর কারখানায় ৬ হাজার কোটি রুপি বিনিয়োগ করবে।

 

অর্থসূচক/এমআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.