নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ‘ক্ষেপণান্ত্র ছুঁড়েছে’ উত্তর কোরিয়া

রোববার রাতে নিউক্লিয়ার ওয়ারহেড বহনে সক্ষম একটি ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র জাপান সাগরের দিকে ছুঁড়েছে উত্তর কোরিয়া৷ স্বঘোষিত পারমাণবিক শক্তিধর রাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার এ ধরনের পরীক্ষা চালানোর ব্যাপারে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে৷

ইতোমধ্যে বিষয়টি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং জাপানকে জানিয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছে সোল ৷ পাশাপাশি নিজ দেশের সামরিক বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রাখা হয়েছে বলেও জানিয়েছে ৷

জাপানও নিশ্চিত করেছে যে উত্তর কোরিয়া ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের মতো দেখতে কিছু একটা ছুঁড়েছে যা সম্ভবত সাগরে পড়েছে৷

উত্তর কোরিয়ার উপর নিউক্লিয়ার ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ব্যাপারে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে৷ সোল মনে করছে, রোববারের পরীক্ষা সেই নিষেধাজ্ঞার লঙ্ঘন৷

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনীর জেনারেল স্টাফের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, উত্তর কোরিয়া জাপান সাগরের ৫৭০ কিলোমিটার গভীরে ক্ষেপণাস্ত্রটি ছুঁড়েছে, তবে সেটি কী ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র তার বিস্তারিত শনাক্ত করা যায়নি৷ এরচেয়ে বেশি তথ্য জানায়নি দেশটির সামরিক বাহিনী৷ আমাদের সামরিক বাহিনী একটি সম্ভাব্য স্বল্প দূরত্বের ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পিয়ংইয়ং এলাকা থেকে পূর্ব সাগরের দিকে আজ রাত দশটা বেজে ৩৮ মিনিটের সময় ছোঁড়া হয়েছে বলে শনাক্ত করেছে৷

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি এক যৌথ বিবৃতিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সোল জানায় যে দেশ দুইটির উপর কোনো ধরনের পারমাণবিক হামলার ফলাফল হবে পিয়ংইয়ংয়ে উত্তর কোরিয়ার শাসক গোষ্ঠীর সমাপ্তি৷

সেই বিবৃতি এবং আসন্ন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-দক্ষিণ কোরিয়ার মহড়ার সংবাদের প্রেক্ষিতে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে উত্তর কোরিয়াও৷ তবে রোববার ক্ষেপণান্ত্র পরীক্ষা চালানোর কোনো তথ্য এই প্রতিবেদন লেখা অবধি নিশ্চিত করেনি দেশটি৷ সূত্র: ডিডাব্লিউ, এএফপি, এপি

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.