হামাসের হাতে আটক সেনাদের মুক্ত করতে গিয়ে ইসরাইলি সেনা হতাহত

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের হাতে আটক একজন ইসরাইলি সেনাকে মুক্ত করার ব্যর্থ অভিযান চালাতে গিয়ে কয়েকজনসেনা হতাহত হয়েছে। এ সময় দখলদার বাহিনীর বোমাবর্ষণে আটক ইসরাইলি সেনাও নিহত হয়েছে।

হামাসের সামরিক বাহিনী ইজ্জাদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেড এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গতকাল (শুক্রবার) সকালে তাদের হাতে আটক একজন ইসরাইলি সেনার সন্ধান পায় দেশটির সেনারা। ইসরাইলি সেনাদের একটি কমান্ডো দল তাদের আটক সহকর্মীকে তুলে নেয়ার চেষ্টা চালায়। হামাস যোদ্ধারা এ সময় পাল্টা হামলা চালালে কয়েকজন শত্রু সেনা হতাহত হয়। তারা আটক বন্দিকে উদ্ধার করার চেষ্টা বাদ দিয়ে পালাতে উদ্যত হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, এ সময় যথারীতি ইসরাইলি যুদ্ধবিমান হস্তক্ষেপ করে এবং সেনাদের পালাতে সাহায্য করার জন্য আকাশ থেকে ব্যাপকভাবে বোমাবর্ষণ করে। এই সংঘর্ষ ও গোলাগুলিতে সার বারুচ নামক ২৫ বছর বয়সি ওই ইসরাইলি বন্দি সেনা নিহত হয়।

ইসরাইলি সেনাদের বিমান হামলায় নিহত পণবন্দি ইসরাইলি সেনার ভিডিও প্রকাশ করেছে হামাস। আগে ধারন করা ভিডিওতে বারুচকে বলতে শোনা যায়, আমার নাম সা’র বারুচ। কিব্বুজ বেরি এলাকায় আমার বাড়ি। আমি ৭ অক্টোবর আটক হয়েছি এবং [ভিডিও রেকর্ডের দিন পর্যন্ত] ৪০ দিন ধরে আটক রয়েছি। আমি আমার বাড়ি ফিরে যেতে চাই।” কিন্তু ইসরাইলি সেনাদেরই হামলার কারণে সে আর জীবিত অবস্থায় বাড়ি ফিরে যেতে পারল না। তেল আবিবকে এখন ফিলিস্তিনি বন্দিদের মুক্তির বিনিময়ে এই সেনার লাশ ফেরত নিতে হবে। এরপর ভিডিওতে ওই ইসরাইলি সেনার রক্তমাখা পোশাক ও অন্যান্য সামগ্রী এবং সবশেষে তার লাশ দেখানো হয়।

ওদিকে, হামাসের বিবৃতি প্রকাশের পর ইসরাইলি সেনারা এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। তারা বলেছে, হামাসের হাতে আটক পণবন্দি সেনাদের উদ্ধার করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছে ইসরাইলি সেনারা। এ ঘটনায় তারা তাদের দুই সেনার গুরুতর আহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছে। ইসরাইলি বাহিনী দাবি করেছে, এ হামলায় পণবন্দিদের আটক করে রাখা কয়েকজন হামাস যোদ্ধা নিহত হয়েছে।

ইসরাইলি বাহিনীর মুখপাত্র রিয়ার অ্যাডমিরাল ড্যানিয়েল হ্যাগারি বলেছেন, শেষ পর্যন্ত পণবন্দি সেনাদের মুক্ত করতে ব্যর্থ হয়েছে আমাদের সেনারা। হামাসের পক্ষ থেকে প্রকাশ করা ভিডিওর বর্ণনায় এসেছে, ইসরাইলি সেনারা অ্যাম্বুলেন্সে করে মানবিক তৎপরতা চালানোর ভান করে ইসরাইলি পণবন্দিকে মুক্ত করতে এসেছিল।

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.