বিশ্বকাপে সেরা তিনে যাদেরকে দেখছেন ডি ভিলিয়ার্স

মাঝের সময়টায় ছন্দহীনতার কারণে সমালোচনায় ছিলেন কোহলি। আড়াই বছরের বেশি সময় ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরি পাননি তিনি। সেই ক্ষরা অবশ্য বেশ ভালোভাবেই উতরে গেছেন কোহলি। শুধু তাই নয়, দারুণ ছন্দে থেকে বিশ্বকাপ শুরু করছেন তিনি। এই বছর ১৬ ম্যাচে ৫৫.৬৩ গড় ও ১১২.৯১ স্ট্রাইক রেটে ৬১২ রান করেন ভারতের এই ব্যাটার। ঘরের মাঠে এবারই শেষ বিশ্বকাপ খেলবেন তিনি।

২০১১ সালে অবশ্য ভারতের হয়ে বিশ্বকাপ জিতেছিলেন কোহলি। লম্বা সময় পর ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে শেষে আবারও শিরোপা জেতার সুযোগ তার সামনে। কেননা ভারতীয়দের অনেকের কাছেই এটা শুধুই ‘কোহলির বিশ্বকাপ’। এদিকে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) লম্বা সময় ধরে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে খেলার সুবাদে বন্ধুত্ব গড়ে উঠেছে বিরাট কোহলি এবং এবি ডি ভিলিয়ার্সের মাঝে। তাদের অটুট বন্ধুত্বের কথা বেশ সুপরিচিত ক্রিকেট মহলে। অবসরে থাকা ডি ভিলিয়ার্স প্রায় সময়ই কোহলিকে ঘিরে নিজের প্রত্যাশার কথা জানান।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘বিরাট কোহলি দারুণ একটি বিশ্বকাপ কাটাতে যাচ্ছে। সে বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি রান সংগ্রাহকদের একজন হতে যাচ্ছে। সর্বোচ্চ তিন সংগ্রাহকের মধ্যে সে অবশ্যই থাকবে।’

ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে কোহলি ছাড়াও আরও দুজনের বেশ ভালো সম্ভাবনা দেখছেন ডি ভিলিয়ার্স। তিনি আরও বলেন, ‘আমি শ্রেয়াস আইয়ারের ব্যাটিং দেখতে খুব পছন্দ করি। মাঝের ওভারগুলোয় সে যেভাবে ব্যাট করতে, তা আমি দেখতে খুব পছন্দ করি। খুবই নিয়ন্ত্রিত এবং শান্ত থাকে সে, যা আমাকে শুভমান গিলের কথা মনে করিয়ে দেয়। শুভমান গিলের খেলার কৌশল বেশ সোজাসাপটা। সে ভিন্ন ভিন্ন অনেক কিছু করার চেষ্টা করে না। সে বোলারদের ওপর দারুণ চাপ তৈরি করতে পারে।’

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.