বিশ্বকাপের পর একদিনও অধিনায়কত্ব করব না: সাকিব

সর্বশেষ আফগানিস্তান সিরিজের মাঝ পথে হুট করেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন তামিম ইকবাল। এরপর প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে নিজের সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আছেন এই ওপেনার। যদিও কদিন পরেই ওয়ানডের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ান এই ওপেনার। ফলে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের আগে বড় বিপদে পড়ে বাংলাদেশ দলের ম্যানেজমেন্ট। এমন অবস্থায় দলের নেতৃত্ব তুলে দেয়া হয় সাকিব আল হাসানের কাঁধে। তার নেতৃত্বেই এশিয়া কাপে খেলেছে বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপেও সাকিবের নেতৃত্বে খেলতে যাচ্ছে টাইগাররা। তবে তামিম ইকবালকে বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ দেয়ার ফলে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। এমন অবস্থায় বিশ্বকাপের পর আর একদিনও অধিনায়কত্ব করবেন না বলে জানিয়েছেন সাকিব। টি স্পোর্টসের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেছেন।

সাকিব বলেন, ‘এখন যে অবস্থা আছে এই বিশ্বকাপ পর্যন্তই আমি অধিনায়কত্ব করব। পরেও না একদিন পরেও না। আমি ১৭ তারিখে আমার রেজিগনেশন দিয়েছিলাম। ১৭ তারিখ আমি যদি দিয়ে থাকি তখনকি আমি জানতাম যে এই সিচুয়েশন হচ্ছে। ১৭ তারিখে আমি পাপন ভাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। সিইওকে ইমেইল করেছি যে আমি আর অধিনায়কত্ব করতে চাই না।’

অধিনায়কত্ব না করার কারণ ব্যাখ্যা করে সাকিব বলেন, ‘যে কারণগুলোর কারণে আমি বিশ্বকাপের আগে নিতে চাইনি। একই কারণে আমি বিশ্বকাপে অধিনায়কত্ব করতে চাই না। আর কোনো কারণে না। না কোনো প্লেয়ার, না দলের কোনো সিচুয়েশন, না দল কেমন করবে ভালো-খারাপ কোনো কিছু না। শুধু আমার কাছে মনে হয়েছে আমি হাসতে চাই। আমার খেলাটা উপভোগ করা দরকার। আমি পারফর্ম করতে চাই। এই অধিনায়কত্ব আমার কাছ থেকে অনেক কিছু কেড়ে নিচ্ছে। এই একটা কারণেই আমি চাইনি অধিনায়কত্ব করতে।’

 

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.