ফের ইরানে শাহ চেরাগে হামলা, নিহত ১

ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় শিরাজ নগরীর শাহ চেরাগ মাজারে আবারও সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এ ঘটনায় অন্তত একজন নিহত ও আটজন আহত হয়েছেন। প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

সরকারি সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, এবার এক বন্দুকধারী দরগার বাইরে থাকা মানুষদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে থাকে। এর ফলে একজন মারা গেছেন। চারজন আহত হন। তারপর তাকে ধরে ফেলে নিরাপত্তারক্ষীরা। রোববার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাতটায় এই ঘটনা ঘটেছে।

আধা সরকারি সংবাদসংস্থা ফারস বলছে, বন্দুকধারী বাব-আল-মহদি গেট দিয়ে ঢোকার চেষ্টা করে। নিরাপত্তা বাহিনী তাকে বাধা দেয়। তারপরই সে গুলি চালাতে শুরু করে।

দেশটির ইসলামিক রেভলিউশনারি গার্ড কোরের কম্যান্ডার ইয়াদোল্লাহ বউয়ালি জানিয়েছেন, দরগার দক্ষিণ দিকের গেট দিয়ে আক্রমণকারী ঢোকার চেষ্টা করেছিল। তার হাতে ছিল রাইফেল এবং চারটি ম্যাগাজিন, তাতে ২৪০টি বুলেট ছিল। তারমধ্যে সে কিছু বুলেট ব্যবহার করতে পেরেছিল। তারপরই তাকে ধরে ফেলা সম্ভব হয়।

অনলাইনে পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, মানুষ ভয় পেয়ে ছোটাছুটি করছেন। দোকানপাট বন্ধ করা হচ্ছে। দেওয়ালে, জানালার কাচে গুলি লেগেছে। মেঝেয় রক্তের দাগ। এখনো পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী এই আক্রমণের দায় নেয়নি।

২০২২ সালের ২৬ অক্টোবর এই দরগায় হামলা হয়েছিল। তখন আক্রমণকারীর গুলিতে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ৪০ জন আহত হয়েছিলেন। নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে আক্রমণকারী মারা যায়। তারপর আইএস আইএল(আইএসআইএস)এই আক্রমণের দায় স্বীকার করেছিল। গত মাসে অক্টোবর হামলার সঙ্গে যুক্ত দুইজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে ইরান। তারপরেই এই হামলা হলো। সূত্র: ডিডাব্লিউ, পার্সটুডে, এপি, এএফপি, রয়টার্স, আল-জাজিরা

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.