হিজাব না পরায় অভিনেত্রীর ২ বছরের স্থগিত কারাদণ্ড

ইরানের প্রখ্যাত অভিনেত্রী আফসানে বায়েগানকে জনসম্মুখে হিজাব না পরার দায়ে দুই বছরের স্থগিত কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। বুধবার (১৯ জুলাই) স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

আফসানের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারে দুই বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন আদালত। বিচারক রায়ে বলেছেন, প্রতি সপ্তাহে একদিন আফসানেকে পরিবারবিরোধী মনোভাবের কারণে বাধ্যতামূলকভাবে মনোবিদের দ্বারস্থ হয়ে কাউন্সেলিং নিতে হবে। তারপর স্বাস্থ্যবিষয়ক সনদ আদালতে দিতে হবে।

জনসম্মুখে মাথা ঢেকে বা হিজাব পরে চলাফেরা করা ইরানে নারীদের জন্য বাধ্যতামূলক। কিন্তু এ আইন ভেঙেছেন ৬১ বছর বয়সী আফসানে। আফসানে হিজাব না পরে একটি চলচ্চিত্র প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন। পরে সেই ছবি তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে।

গত বছর পুলিশি হেফাজতে মাসা আমিনি নামের এক কুর্দি তরুণীর মৃত্যু ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠেছিল ইরান। হিজাবনীতি ভঙ্গ করার অভিযোগে দেশটির নীতি পুলিশ মাসাকে আটক করেছিল। পুলিশি হেফাজতে গত ১৬ সেপ্টেম্বর মাসার মৃত্যু হয়।

মাসার পরিবারের দাবি, মাসাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। তারা এ ঘটনায় মামলাও করেছে। মাসার মৃত্যুর ঘটনায় ইরানে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। এই বিক্ষোভ ঠেকাতে দমন-পীড়ন চালায় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। বিক্ষোভে ইরানজুড়ে তিন শতাধিক মানুষের প্রাণ গেছে। আটক করা হয়েছে হাজারেরও বেশি বিক্ষোভকারীকে।

অর্থসূচক/ এইচএআই

 

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.