সাংবাদিক রোজিনার বিরুদ্ধে বাদীর নারাজির ঘটনায় ইআরএফ’র উদ্বেগ

অর্থনীতিবিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) স্থায়ী সদস্য ও দৈনিক প্রথম আলোর বিশেষ প্রতিনিধি রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেওয়ার পর অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এদিকে পিবিআই’র চূড়ান্ত প্রতিবেদনে অব্যাহতি পাওয়ার পরেও রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলার বাদী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শিব্বির আহমেদ ওসমানীর নারাজী দেওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইআরএফ।

বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) এক বিবৃতিতে ইআরএফ কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষে সংগঠনটির সভাপতি মোহাম্মদ রেফায়েত উল্লাহ মীরধা ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম এ উদ্বেগ জানান।

ইআরএফ নেতৃবৃন্দ বলেন, রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা থেকে ডিবি পুলিশের চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেওয়ার প্রায় ৭ মাস পর ফের নারাজি দিয়েছেন মামলার বাদী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শিব্বির আহমেদ ওসমানী। এটি স্বাধীন ও মুক্ত সাংবাদিকতার অন্তরায় হিসেবে অভিহিত করেন নেতৃবৃন্দ। তারা অবিলম্বে এই মামলা থেকে রোজিনা ইসলামকে অব্যাহতি দেওয়ার আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম ২০২১ সালের ১৭ মে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে গিয়ে হেনস্তার শিকার হন। তাকে প্রায় ছয় ঘণ্টা আটকে রাখার পর শত বছরের পুরোনো ‘অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে’-এ গ্রেপ্তার দেখানো হয়। ওই মামলা তদন্ত করে গত বছরের জুলাইয়ে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছিল ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। রোজিনা ইসলামকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আবেদন জানিয়ে তাতে বলা হয়, তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের স্বপক্ষে কোনো উপাদান পাওয়া যায়নি। এদিকে গত সোমবার আদালতে হাজির হয়ে ওই প্রতিবেদনে নারাজি দেন মামলার বাদী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শিব্বির আহমেদ ওসমানী। আদালত তার আবেদন মঞ্জুর করে মামলাটি অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দেন।

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.