লিটনকে সাফল্যের মন্ত্রণা দিলেন বাবর-রিজওয়ান

বর্তমান সময়ের বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটার ধরা হয় লিটন দাসকে। কেন তাকে সেরা বলা হয়, ত্রিদেশীয় সিরিজে পাকিস্তানের বিপক্ষে আবারও প্রমাণ করেছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। খেলেছেন ৪২ বলে ৬৯ রানের দারুণ এক ইনিংস। এই ইনিংস জুড়েই ছিল দৃষ্টিনন্দন সব শটের ফুলঝুরি।

লিটনের এমন পারফরম্যান্সে ভর করেই বাংলাদেশের সংগ্রহটা ১৭০ পেরোয়। যদিও বোলারদের ব্যর্থতায় এই ম্যাচে হারতে হয়েছে ৭ উইকেটের ব্যবধানে। ম্যাচ শেষে পাকিস্তানের দুই তারকা ব্যাটার বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের কাছ থেকে বিভিন্ন পরামর্শ নিতে দেখা গেছে তাকে। ম্যাচের মধ্যে লিটনকে আউট করতে বিভিন্ন ফাঁদ আঁটলেও। ম্যাচের পর পারফরম্যান্সে কীভাবে আরও উন্নতি করা যায় সেই বিষয়ে পরামর্শ দিতে কার্পন্য করেননি বাবর-রিজওয়ান। লিটনকে বাবরের পরামর্শ নিজের আত্মবিশ্বাসে যেন স্থির থাকেন লিটন।

পিসিবির প্রকাশ করা এক ভিডিওতে বাবরকে বলতে দেখা যায়, ‘যত কম শুনবেন আত্মবিশ্বাস ততটাই স্থির থাকবে। না চাইতেও আপনার মাঝে দ্বিধা চলে আসেই, আপনি ভালো করতে থাকলেও। বাচ্চাদেরও এই সমস্যা হয়। তাদেরকে যা করতে বলবে তাই করবে। এই পর্যায়ে কেউ একজন কোন কথা বলে দিল, সেটা শুনলে সমস্যা।’

ক্যারিয়ারে উত্থান পতন থাকবেই। বাজে পারফরম্যান্স ভুলে নতুন করে শুরু করতে হবে। এমনটাই পরামর্শ দিয়েছেন রিজওয়ান। তাহলেই সাকিব আল হাসানের মতো শক্ত মানসিকতার অনেক ক্রিকেটার তৈরি হবে ড্রেসিংরুমে মনে করেন পাকিস্তানের এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার।

তিনি বলেন, ‘রিস্টার্ট বাটন চাপো, সব শেষ হবে তাতে। খেলায় ০ হবে, ১০ হবে, সেঞ্চুরি হবে। ড্রেসিরুমে যদি নিজেকে ভিন্ন বানাতে পারো তাহলে পরিস্থিতি ভিন্ন হবে। তখন সেখানে অনেকে এমন হবে যারা সাকিবের মত মানসিকভাবে শক্ত।’

লিটনকে মানসিকভাবে শক্ত হওয়ার টোটকা দিয়ে রিজওয়ান বলেন, ‘একটি জিনিসের জন্য নিজেকে মানসিকভাবে তৈরি করে ফেল। ক্যারিয়ারে এমন ১০ ইনিংস যাবে যেখানে আমি সব করে ফেলতে পারব, আবার এমন ১০ ইনিংস যাবে যেখানে কিছু করতে পারব না। যে বড় প্লেয়ার হবে সে এই ২০ ইনিংসে ৪ বার ফ্লপ হবে, ১৬ বার জিতবে।’

 

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.