২ ডাকাত গ্রুপের গোলাগুলিতে নিহত ৩

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়াতে দুই ডাকাত গ্রুপের সংঘর্ষে তিন ডাকাত নিহত হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ৩টি বন্দুক, দুই রাউন্ড তাজা গুলি ও কিছু দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- উপজেলার মেঘনা নদী সংলগ্ন চর ঘাসিয়ার বাসিন্দা এবং ডাকাত ফখরুল গ্রুপের সদস্য কবির (৩৬), সাহারাজ (৩৭) ও নবীর উদ্দিন ওরফে নূর নবী (৩৬)। ।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ভোরে উপজেলার ঘাসিয়ার চর এলাকায় এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। সকালে মরদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।

এ তথ্য নিশিচত করে হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বলেন, মরদেহগুলো উদ্ধার করে চেয়ারম্যানঘাটে আনা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আগে চরের নিয়ন্ত্রণ ছিল ডাকাত খোকনের হাতে। একপর্যায়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয় সে। তারপর চর এলাকা নতুন করে নিয়ন্ত্রণ নেয় তার ভাই ফখরুল। কয়েক দিন আগে খোকন জামিন এসে আবার চরের নিয়ন্ত্রণ পেতে মরিয়া হয়ে ওঠে। একপর্যায়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ডাকাত ফখরুলও খোকন বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়। নিহত তিনজন ডাকাত ফখরুল গ্রুপের সদস্য।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাতিয়া কোষ্টগার্ডের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট সাফিউল কিঞ্জল বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে ৫ডাকাতকে আটক করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে চলে আসার পর স্থানীয় সূত্র বলছে ওই ঘটনায় তিন ডাকাত নিহত হয়েছে। তবে আমরা ঘটনাস্থলে থাকাকালীন তিন ডাকাত নিহত হওয়ার কোন আলামত দেখতে পাইনি।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...