সাগরের নিচে গ্যাস পাইপলাইনে লিকেজ: চরম উদ্বেগে রাশিয়া

বালটিক সাগরের নিচ দিয়ে নির্মিত নর্ড স্ট্রিম ওয়ান এবং নর্ড সিট্রম টু গ্যাস পাইপলাইনে যে লিকেজ সৃষ্টি হয়েছে তাতে মস্কো চরমভাবে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। সোমবার নর্ড স্ট্রিম ওয়ান এবং নর্ড স্ট্রিম টু গ্যাস পাইপ লাইনে এই লিকেজ দেখা দেয় তবে কিভাবে লিকেজ সৃষ্টি হয়েছে তা পরিষ্কার নয়।

সোমবার প্রথম নর্ড স্ট্রিম ওয়ানে লিকেজ শনাক্ত করা হয়, তার কয়েক ঘণ্টা আগে নর্ড স্ট্রিম টুতে গ্যাসের চাপ কমে যায়। ক্রেমলিনের মুখপাত্রের দিমিত্রি পেসকভ জানিয়েছেন, মোট তিনটি লিকেজের কারণে গ্যাসের চাপ উল্লেখযোগ্যভাবে কমে গেছে। সোমবার গ্যাসপ্রম এবং অপারেটিং কোম্পানি দুই পক্ষ থেকেই গ্যাসের চাপ কমে যাওয়ার বিষয়টি জানা যায়।

পাইপলাইনে লিকেজ সম্পর্কে তিনি বলেন, এটি খুবই বিরক্তিকর খবর, আসলে আমরা গ্যাসের পাইপ লাইনে ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ নিয়ে কথা বলছি, তবে এখন এটি পরিষ্কার নয় কি পরিমাণে লিকেজ সৃষ্টি হয়েছে। এটি সম্পূর্ণভাবে নজিরবিহীন একটি পরিস্থিতি যা তদন্ত করা উচিত। গ্যাস পাইপ লাইনের এই লিকেজদের কারণে আমরা খুবই উদ্বিগ্ন।

রাশিয়া থেকে নির্মিত নর্ড স্টিম গ্যাস পাইপ লাইনের দৈর্ঘ্য হচ্ছে ১২০০ কিলোমিটার এবং ডেনমার্কের ইকোনমিক জোনে এই লিকেজ দেখা দিয়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ায় মস্কো নর্ড স্ট্রিম ওয়ান এবং নর্ড স্ট্রিম টু পাইপলাইন দিয়ে উল্লেখযোগ্য মাত্রায় গ্যাস সরবরাহ কমিয়ে দিয়েছে।
খবর- পার্সটুডে

সাগরের পানির নিচেই গ্যাস পাইপ লাইনের এই লিকের দেখা দিলেও এখনো পরিবেশগত তেমন কোন বিপর্যয়ের খবর পাওয়া যায়নি। দি ইউরেশিয়া গ্রুপ জানিয়েছে, এই পাইপ লাইনের যেকোনো ধরনের দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি ও নির্মাণ কৌশল ব্যবহার করা হয়েছে। এই ধরনের সম্ভাব্য দুর্ঘটনা এড়াতে সমুদ্রের তলদেশ কংক্রিটের ওপর মোটা স্টিলের পাইপ বসানো হয়েছে।

দি ইউরেশিয়া গ্রুপ বলেছে, দুই পাইপ লাইনেই এখনো গ্যাসের যথেষ্ট চাপ আছে এবং প্রতিদিন সাড়ে ১৬ কোটি ঘন মিটার গ্যাস সরবরাহ করা যাচ্ছে।

সুইডেনভিত্তিক পাইপলাইন পরিচালনাকারী সংস্থা নর্ড স্ট্রিম বলেছে, এটি পরিবেশের জন্য মারাত্মক রকমের নিরাপত্তা সমস্যা তৈরি করতে পারে, তবে পানির ভেতরেই এই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হবে।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...