মুন্সিগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত যুবদলকর্মী মারা গেছেন

মুন্সিগঞ্জের মুক্তারপুর পুরাতন ফেরিঘাট এলাকায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত যুবদলকর্মী শহীদুল ইসলাম শাওন (২৭) মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এ তথ্য নিশ্চিত করে ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘শাওনকে গতকাল মুন্সিগঞ্জ থেকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে এনে ভর্তি হয়। তার মাথায় আঘাত ছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।’

মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলায় গতকাল বুধবার পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সেখানে পুলিশ ও বিএনপির নেতা-কর্মীসহ প্রায় ৪০ জন আহত হন। তাদের একজন যুবদল কর্মী শাওন।

শাওনের ছোটো ভাই সোহাগ বলেন, দুপুরের খাবারের গতকাল পর ভাই বলেছিলেন একটু ঘুরে আসি। পরবর্তীতে সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার সন্ধান পাই। এসে দেখি তিনি অচেতন অবস্থায় আছেন। পরে রাত ১১টার দিকে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। ভাইয়া মাথায় আঘাত পেয়েছেন। শাওনের স্ত্রী ও ১ বছরের একটি ছেলে আছে বলে জানান তার ছোটো ভাই।

গতকাল বুধবার বিকেলের ওই সংঘর্ষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ওসিসহ ২৫-৩০ জন ও বিএনপির ১০-১৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়। সংঘর্ষে আহত জাহাঙ্গীর হোসেন (৪০), তারেক (২০) ও শাওনকে(২৭) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...