পুঁজিবাজারে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগের সুযোগ বাড়ল

ব্যাংকের পর এবার নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানেরও (এনবিএফআই) পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ বেড়েছে। এখন থেকে পুঁজিবাজারে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের উর্ধসীমা (Exposure Limit) নির্ধারণে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত শেয়ার, ডিবেঞ্চার, কর্পোরেট বন্ড, মিউচুয়াল ফান্ড ইউনিট এবং পুঁজিবাজারের অন্যান্য নিদর্শনপত্রে বিনিয়োগ হিসাবায়নের ক্ষেত্রে বাজারমূল্য (Market Price)-এর পরিবর্তে ক্রয়মূল্য (Cost Price) বিবেচনা করা হবে।

রোববার (১৪ আগস্ট) এই সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ।

সব আর্থিক প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পুঁজিবাজারে শেয়ার ধারণের উর্ধ্বসীমা (Exposure Limit) নির্ধারণে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত শেয়ার, ডিবেঞ্চার, কর্পোরেট বন্ড, মিউচুয়াল ফান্ড ইউনিট এবং পুঁজিবাজারের অন্যান্য নিদর্শনপত্রে বিনিয়োগ হিসাবায়নের ক্ষেত্রে বাজারমূল্য-এর পরিবর্তে ক্রয়মূল্য বিবেচনা করতে হবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, সার্কুলারের অন্যান্য নির্দেশনা অপরিবর্তিত থাকবে ।

এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে। আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইন, ১৯৯৩-এর ১৮(২) ধারায় এ নির্দেশনা জারি করা হলো।

এর আগে গত ৪ আগস্ট তফসিলি ব্যাংকগুলোর এক্সপোজার গণনায় সিকিউরিটিজের  বাজারমূল্যের পরিবর্তে ক্রয়মূল্যকে বিবেচনায় নেওয়ার নির্দেশনা জারি হয়।

সিকিউরিটিজের ক্রয়মূল্যের পরিবর্তে বাজার মূল্যে এক্সপোজার গণনা করা হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে সব সময় চাপে থাকতে হয়। শেয়ারের দাম বেড়ে গেলে নতুন বিনিয়োগ না করা সত্ত্বেও অনেক সময় এক্সপোার নির্ধারিত সীমা ছাড়িয়ে যায়। ফলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে শেয়ার বিক্রি করে এক্সপোজার কমাতে হয়। তাতে প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ভাল মুনাফা করা কঠিন হয়ে পড়ে। অন্যদিকে শেয়ার বিক্রির চাপের কারণে বাজারের স্থিতিশীলতা ব্যাহত হয়।

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...