সালমান রুশদির এক চোখ হারানোর শঙ্কা, কথা বলতে পারছেন না

বর্তমানে কৃত্রিম উপায়ে দুর্বৃত্তের হামলায় গুরুতর আহত ব্রিটিশ ঔপন্যাসিক সালমান রুশদির শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার ব্যবস্থায় (ভেন্টিলেটর) রাখা হয়েছে। তবে, তিনি কথা বলতে পারছেন না। তাঁর এক কর্মকর্তার (এজেন্ট) বরাতে সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

অ্যান্ড্রু ওয়াইলি নামের রুশদির এক কর্মকর্তা এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘সালমান হয়তো একটি চোখ হারাতে পারেন। তাঁর বাহুর স্নায়ু বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এবং ছুরিকাঘাতে তাঁর পাকস্থলী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।’

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে একটি এক মঞ্চে বক্তব্য দেওয়ার সময় ব্রিটিশ-মার্কিন ঔপন্যাসিক সালমান রুশদির ওপর হামলা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিটোকোয়া ইনস্টিটিউশনের এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছিলেন সালমান রুশদি। এ সময় তাঁরা এক ব্যক্তিকে মঞ্চে দৌড়াতে দেখেন। ওই ব্যক্তি রুশদির সঙ্গে পরিচিত হওয়ার ছলে তাঁকে ঘুসি বা ছুরিকাঘাত করেন।

অনলাইনে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ঘটনার পরপরই রুশদিকে সহায়তা করতে অনুষ্ঠানে উপস্থিত লোকজন মঞ্চে ছুটে আসেন। হামলার ঘটনার পর স্থানীয় পুলিশ হাদি মাতার (২৪) নামের সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে আটক করেছে।

‘স্যাটানিক ভার্সেস’ লিখে সালমান রুশদি রোষানলে পড়েন। এরপর থেকে তিনি হত্যার হুমকি পেয়ে আসছেন। বুকার পুরস্কার বিজয়ী সালমান রুশদির লেখা ‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ বইটিকে মুসলিম বিশ্বের অনেকেই ধর্মদ্রোহ বলে মনে করেন।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...