এফওএমসি’র বৈঠকে সুবাতাস বইলো ভারতের পুঁজিবাজারে  

খোলা বাজারের আর্থিক নীতিনির্ধারক বোর্ড, এফওএমসি (ফেডারেল ওপেন মার্কেট কমিটি)-এর বৈঠকে শরতের হাওয়া লেগেছে ভারতের দুই পুঁজিবাজার-বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ (বিএসই) ও ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে (এনএসই)। যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক হার বৃদ্ধির খবর ও বাজার অস্থিতিশীলতার মধ্যে এই বৈঠকে দুই স্টকের সূচক বেড়েছে প্রায় ১ শতাংশ।

বুধবার (২৭ জুলাই) ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ও ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

আজ এসঅ্যান্ডপি বিএসই সেনসেক্স সূচক সংগ্রহ করেছে ৫৪৭.৮৩ পয়েন্ট (০.৯৯ শতাংশ)। সেই সঙ্গে নিফটি-৫০ সূচক সংগ্রহ করেছে ১৫৭.৯৫ পয়েন্ট (০.৯৬ শতাংশ)। এই সংগ্রহ নিয়ে দুই স্টকের মোট পুঁজি দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৫৫ হাজার ৮১২ পয়েন্ট ও ১৬ হাজার ৬৪১ পয়েন্ট।

এই দিন সেনসেক্সকে এগিয়ে নিয়ে গেছে সান ফার্মাসিউটিক্যালস ইন্ডাস্ট্রিজ, স্টেইট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, লার্সন অ্যান্ড টাউব্রো (এলঅ্যান্ডটি), বাজাজ ফাইন্যান্স, এশিয়ান পেইন্টস, টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিস (টিসিএস)।

এছাড়াও রয়েছে আল্ট্রাটেক সিমেন্ট, রেডি’স ল্যাবরেটরিজ, অক্সিস ব্যাংক, এইচসিএল টেকনোলোজিজ, ইন্ডাস ব্যাংক, মারুতি সুজুকি ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান ইউনিলিভার, টাটা স্টিল, ইনফোসিস ও পাওয়ার গ্রিড কর্পোরেশন।

পক্ষান্তরে সেনসেক্সে ভারতি এয়ারটেল, কোটাক মাহিন্দ্র ব্যাংক, এনটিপিসি, বাজাজ ফিনসার্ভ ও রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজগুলো পিছিয়ে থাকলেও নিফটিকে এগিয়ে নিয়ে গেছে নিফট-ফার্মা, নিফটি হেলথকেয়ার, নিফটি মিডিয়া, ও নিফটি ব্যাংক।

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ব্যাংকের (কেন্দ্রীয় ব্যাংক) ব্যাংক হার-নীতি আগামী সপ্তাহে আরো বাড়বে বলে গণমাধ্যমে এসেছে। এতে সকালের প্রি-ওপেনিং সেশনটা লাল সংকেত দিয়ে শুরু হয়। আর এই সময়ে ভারতের খোলা বাজারের আর্থিক নীতিনির্ধারক বোর্ড, এফওএমসি বাজারকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাব থেকে মুক্ত রাখতে এক বৈঠক করে। আর এতেই বাজার সবুজ সংকেতে ঘুরে দাঁড়ায়।

অর্থসূচক/এইচডি/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...