রাশিয়ায় সেনা ও ট্যাংক পাঠালো চীন

সামরিক প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে রাশিয়াতে সেনা ও ট্যাংক পাঠিয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষ শক্তিধর দেশ চীন। রাশিয়া আয়োজিত ‘ইন্টারন্যাশনাল আর্মি গেইমজ’-এ অংশ নেওয়া ভারত-ইরানসহ ৩৭ টি দেশের প্রতিপক্ষদের সঙ্গে প্রতিযোগিতার লড়াইয়ে অংশ নিতে চীন এই সেনা ও ট্যাংক পাঠায়।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) চীনা গণমাধ্যম সাউথ চাইনা মর্নি পোস্ট (এসসিএমপি) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। আগামী মাসে (আগস্টে) রাশিয়ায় অনুষ্ঠেয় মিলিটারি প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে চীন রেলপথে সেনাবাহিনী, সামরিক ট্যাংক ও সাঁজোয়া যান পাঠিয়েছে। ট্রেনটি চীনের মঙ্গোলিয়া দিয়ে রাশিয়ার জাবাইকালস্ক গিয়ে পৌঁছেছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু না বলে সোমবার (২৫ জুলাই) সিসিটিভি গণমাধ্যমে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

এই সামড়িক প্রতিযোগিতায় চীন ছাড়াও অংশ নেবে ভারত, ইরান, কাজাখাস্তান, উজবেকিস্তান, আজারবাইজান ও আর্মেনিয়াসহ ৩৭ টি দেশ ও অঞ্চলের সামরিক প্রতিনিধিগণ। ১৩ থেকে ২৭ অগাস্ট পর্যন্ত অনুষ্ঠেয় এ প্রতিযোগিতা রাশিয়ার শীর্ষ বহুমুখি সামরিক অনুশীলন।

রাশিয়া-পরিচালিত মিলিটারি অনুশীলনকে ওয়াশিংটন-ভিত্তিক থিংক ট্যাংক চীন-রাশিয়া ও ইরান-ভেনেজুয়ালার জন্য একটা ‘কৌশলগত পদক্ষেপ’ বলে উল্লেখ করেছেন। ল্যাটিন আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে ন্যাটোর করা সামরিক মহড়ার বিকল্প হিসেবে গড়ে ওঠেছে বলে থিংক ট্যাংক জানায়।

এর আগে (জুন-২০২২) ন্যাটো তার মিত্রদের নিয়ে বাল্টিক রাষ্ট্রে-এস্তোনিয়া, লাটভিয়া এবং লিথুয়ানিয়াতে ১৩ দিনের এক সামরিক মহড়া চালায়। এতে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ফ্রান্স, নরওয়ে, বেলজিয়াম, সুইডেন ও ফিনল্যান্ড-সহ ১৪টি দেশ এতে অংশগ্রহণ করে।

এই প্রতিযোগিতাকে ঘিরে জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় উদ্বেগ প্রকাশ করে জানিয়েছে, চীন-রাশিয়ার মধ্যে যৌথ আকাশ ও নৌ মহড়ায় সহযোগিতার সম্পর্ক দিন দিন গভীর হচ্ছে। এটা জাপানের নিরাপত্তায় এক ধরনের প্রত্যক্ষ প্রভাব ফেলবে। তবে বেইজিং ও মস্কো বলছে তৃতীয় কোনো দেশ তাদের টার্গেটে নেই। উদীয়মান পশ্চিমা শক্তিকে মোকাবিলা করতে এটা করা হয়েছে বলে তারা জানান।

 

অর্থসূচক/এইচডি/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...