ইম্পেরিয়াল হসপিটালে বিশেষ ছাড় পাচ্ছে ইডিইউ পরিবার

ইম্পেরিয়াল হসপিটালে বিশেষ ছাড়ের সুযোগ এনেছে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ)। এখন থেকে ইডিইউ কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষরিত রেফারেন্স দেখালেই ইম্পেরিয়াল হসপিটালে বিশেষ ছাড় পাবে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) ইম্পেরিয়াল হসপিটালের পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এক ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির এক চুক্তি হয়। এই চুক্তির অধীনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং তাদের পরিবার (বাবা-মা, স্বামী-স্ত্রী ও নাবালক সন্তান) ইম্পেরিয়ালে বিভিন্ন ধরনের সেবা গ্রহণে পাবে বিশেষ ছাড়ে।

ইডিইউর প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, ইডিইউর সকলেই যাতে প্রয়োজনীয় মুহূর্তে বিশ্বমানের হাসপাতালের সেবা গ্রহণ করতে পারে এবং আর্থিকভাবেও সহযোগিতা পায় সে লক্ষ্যে ইম্পেরিয়াল হসপিটালের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি আমরা। এতে করে আমাদের প্রত্যেক সদস্য ও তাদের কাছের মানুষেরা এ কঠিন সময়ে আরো সহজে চিকিৎসা সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে।

তিনি আরো বলেন, করোনাকালের ভয়াবহতা থেকে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি পরিবারের প্রত্যেককে যতোটা সম্ভব সুরক্ষিত করতে সচেষ্ট রয়েছে কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয় নিজের উদ্যোগেই সকলের জন্য মেডিকেল কিট, অক্সিজেন সার্ভিসের ব্যবস্থা করেছে অতিমারীর শুরু থেকেই। ইবনেসিনা, এভারকেয়ার ও এপিক হেলথ কেয়ারের মতো প্রতিষ্ঠানের সাথে একীভূত হয়েছি যাতে বিশেষ ছাড়ে প্যাথলজিকাল ও ডায়াগনস্টিক সেবা নিতে পারে ইডিইউর সদস্যরা।

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির পক্ষে এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন রেজিস্ট্রার সজল কান্তি বড়ুয়া ও ইম্পেরিয়ালের পক্ষে চীফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার মনোয়ারুল হক এফসিএমএ।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ইডিইউর স্কুল অব বিজনেসের অ্যাসোসিয়েট ডিন প্রফেসর ড. রকিবুল কবির, অ্যাক্সেস অ্যাকাডেমি ইন্সট্রাকটর রাফসান এম. চৌধুরী, নেটওয়ার্কিং এন্ড প্লেসমেন্ট সেলের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ তানজিদা আফরিন; ইম্পেরিয়াল হসপিটালের একাউন্টস এন্ড কর্পোরেট ম্যানেজার রুবেন চৌধুরী, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ সায়মা চৌধুরী প্রমুখ।

চুক্তির আওতায় ইম্পেরিয়াল হসপিটালের প্যাথলজিক্যাল, বায়োকেমিস্ট্রি, হিস্টোপ্যাথলজি ইনভেস্টিগেশন প্রভৃতি সেবায় ১২ শতাংশ, রেডিওলজি এবং ইমেজিং এর উপর ১২ শতাংশ, ল্যাব মেডিসিনে ১০ শতাংশ, বেড সার্ভিসে ১০ শতাংশ ছাড় পাবে ইডিইউ পরিবারের সদস্যরা। ছাড়ের অনুমোদনের জন্য ইডিইউ কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করতে হবে।

অর্থসূচক/এইচডি/এমআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...