ম্যারাডোনার চিকিৎসক ও নার্সের বিচার হবে

ম্যারাডোনার মৃত্যুর আগে তার সেবায় নিয়োজিত চিকিৎসক, নার্সসহ আটজনকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে বলে বুধবার প্রকাশিত আদালতের এক রায়ে জানা গেছে৷ তাদের বিরুদ্ধে ‘সাধারণ হত্যার’ অভিযোগ আনা হয়েছে৷

২০২০ সালের ২৫ নভেম্বর হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান ম্যারাডোনা৷ সে সময় তার বয়স হয়েছিল ৬০৷ মৃত্যুর দুই সপ্তাহ আগে মস্তিস্কে রক্ত জমাট বাঁধায় তার অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল৷ অস্ত্রোপচার শেষে তাকে আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনস আয়ার্সের একটি অ্যাপার্টমেন্টে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানেই তার মৃত্যু হয়৷

ম্যারাডোনার মৃত্যু তদন্তে আর্জেন্টিনার পাবলিক প্রসিকিউটর ২০ জন চিকিৎসা বিশেষজ্ঞের সমন্বয়ে একটি দল গঠন করেছিলেন৷ গতবছর তারা প্রতিবেদন জমা দেন৷ এতে তারা অভিযোগ করেন, ম্যারাডোনার চিকিৎসায় ‘ঘাটতি ও অনিয়ম’ ছিল৷ ম্যারাডোনাকে উপযুক্ত জায়গায় চিকিৎসা দেয়া গেলে ‘তার বেঁচে থাকার ভালো সম্ভাবনা ছিল’ বলে জানান তারা৷ এছাড়া ম্যারাডোনাকে সেবা দেয়া ব্যক্তিরা তার মৃত্যু পর্যন্ত ‘দীর্ঘ, যন্ত্রণাদায়ক সময়ের’ জন্য তাকে তার ভাগ্যের উপর ছেড়ে দিয়েছিলেন বলেও মনে করেন বিশেষজ্ঞরা৷

যে আটজনকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে তাদের মধ্যে আছেন ম্যারাডোনার পারিবারিক চিকিৎসক নিউরোসার্জন লেওপোল্ডো লুকু, সাইকিয়াট্রিস্ট অগুস্টিনা কোসাচোভ, সাইকোলজিস্ট কার্লস ডিয়াজ ও মেডিকেল কোঅর্ডিনেটর ন্যান্সি ফোর্লিনি৷ তারা সবাই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷ কোসাচোভের আইনজীবী জানিয়েছেন তারা আপিল করবেন৷ বিচার শুরুর তারিখ এখনও নির্ধারণ করা হয়নি৷ অভিযোগ প্রমাণিত হলে আট থেকে ২৫ বছর পর্যন্ত সাজা হতে পারে৷ সূত্র: ডিডাব্লিউ, এএফপি, রয়টার্স

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...