নাটকীয় ১০ দিনে দামের উঠা-নামা ৫৪%

অস্থির পুঁজিবাজারেও নাটকীয় ঘটনার শেষ নেই। সম্প্রতি বড় এক নাটকীয়তার জন্ম দিয়েছে ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি এসিআই ফর্মুলেশনস লিমিটেড। সর্বশেষ ১০ কার্যদিবসে কোম্পানিটির শেয়ারের দামে বড় ধরনের উত্থান-পতন হয়েছে। আর এই উঠা-নামার হার ৫৪ শতাংশ। এমন অল্প সময়ে এত বেশি উঠা-নামা দেশের পুঁজিবাজারের ইতিহাসে বেশ বিরল।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ৫ মে থেকে টানা ৫ দিন বেড়েছে এসিআই ফর্মুলেশনসের দাম। এই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম ১৬৭ টাকা ৩০ পয়সা থেকে বেড়ে ২২০ টাকা ২০ পয়সায় উঠে, যা গত দুই বছরে শেয়ারটির সর্বোচ্চ দাম। পাঁচ দিনে শেয়ারটির দাম বৃদ্ধি পায় ৫২ টাকা ৯০ পয়সা বা প্রায় ৩১ দশমিক ৬০ শতাংশ।

অন্যদিকে ১৩ মে থেকে শেয়ারটির দাম টানা কমতে থাকে। পাঁচ দিনে শেয়ারটির দাম ৪৭ টাকা ৫০ পয়সা বা ২১ দশমিক ৬০ শতাংশ কমে ১৭২ টাকা ৭০ পয়সায় নেমে আসে।

জানা গেছে, চলতি মাসের শুরুর দিকে রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগ কোম্পানি আইসিবি তার পোর্টফোলিওতে থাকা এসিআই ফর্মুলেশনসের কয়েক লাখ শেয়ার বিক্রি করে। আর ব্লক মার্কেটের মাধ্যমে এর পুরোটাই কিনে নেন আলোচিত বিনিয়োগকারী আবুল খায়ের হিরো। আর তার পরপরই ঘটেছে শেয়ারের দামের এই নাটকীয় উত্থান-পতন।

উল্লেখ, এসিআই গ্রুপের প্রতিষ্ঠান এসিআই ফর্মুলেশনস ২০০৮ সালে সরাসরি তালিকাভুক্তর মাধ্যমে পুঁজিবাজারে আসে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৪৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা। আর এর শেয়ার সংখ্যা ৪ কোটি ৭২ লাখ। মোট শেয়ারের ৬৬ শতাংশ আছে কোম্পানিটির উদ্যোক্তাদের হাতে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা ধারণ করছে ২৭ শতাংশ শেয়ার। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে আছে প্রায় ৭ শতাংশ শেয়ার।

সর্বশেষ অর্থবছরের জন্য কোম্পানিটি ৩৫ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছে; যার মধ্যে ছিল ৫ শতাংশ বোনাস ও ৩০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ।ওই বছর কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৪ টাকা ৭৪ পয়সা। চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৫ টাকা ২৪ পয়সা। এটিকে বার্ষিকীকরণ করলে বছর শেষের সম্ভাব্য ইপিএস দাঁড়ায় ৬ টাকা ৯৮ পয়সা। (প্রকৃত ইপিএস এর চেয়ে কম-বেশি হতে পারে। এটি একটি অনুমান মাত্র)।

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...