চলতি বছর ২ শতাংশ রেমিট্যান্স বেশি আসবে: বিশ্বব্যাংক

চলতি বছরে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ মাত্র ২ শতাংশ বাড়বে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। বিশ্বব্যাংকের মতে, মহামারির মধ্যে নিয়মিত প্রণোদনা দেয়ায় ২০২১ সালে ২২ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পেয়েছিল বাংলাদেশ; চলতি বছরে (২০২২ সাল) তার চেয়ে ২ শতাংশ বেশি রেমিট্যান্স পেতে পারে।

বিশ্বব্যাংক বলছে, ২০২২ সালে বিশ্বব্যাপী রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়ে ৬৩০ বিলিয়ন ডলার পৌঁছবে। তবে দক্ষিণ এশিয়ায় এই প্রবাহ কমবে ৪ দশমিক ৪ শতাংশ। নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে ৪ দশমিক ২ শতাংশ বাড়বে।

‘মাইগ্রেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ব্রিফ’ প্রতিবেদনে এই পূর্বাভাস দেয় বিশ্বব্যাংক। প্রতিবেদনটি বুধবার প্রকাশ হয়।

বাংলাদেশ প্রসঙ্গে এতে বলা হয়েছে, ২০২১ সালে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স মাত্র ২ দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে ২২ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার হয়েছে। চলতি বছরে দেশটির অর্থনীতির অন্যতম প্রধান এই সূচক খুব বেশি বাড়বে না।

২০২২ সালে রোজার ঈদকে সামনে রেখে এপ্রিল মাসে রেমিট্যান্স প্রবাহে ২৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। তার আগে টানা আট মাস এই সূচকে প্রবৃদ্ধি কমেছে।

‘সব মিলিয়ে আশা করা হচ্ছে, ২০২২ সালে বাংলাদেশের রেমিট্যান্স ২ শতাংশ বাড়তে পারে।’

তবে, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে রাশিয়ার ওপর নির্ভরশীল অর্থনীতির দেশগুলোতে রেমিট্যান্স প্রবাহে বড় পতন হবে বলে সতর্ক করেছে সংস্থাটি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, মহামারির মধ্যেও ২০২১ সালে ২ হাজার ২০০ কোটি ২০ লাখ (২২.২০ বিলিয়ন) ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা। যা ছিল বাংলাদেশের ইতিহাসে যে কোনো বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। এর আগে এক বছরে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছিল ২০২০ সালে; ২১ দশমিক ৭৮ বিলিয়ন ডলার।

তবে ২০২০-২১ অর্থবছরের পুরোটা সময়জুড়ে (২০২০ সালের জুলাই থেকে ২০২১ সালের জুন) রেমিট্যান্সের উল্লম্ফন লক্ষ্য করা গেছে। ওই অর্থবছরে অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে ২ হাজার ৪৭৮ কোটি (২৪.৭৮ বিলিয়ন) ডলার রেমিট্যান্স পাঠান প্রবাসীরা, যা ছিল আগের অর্থবছরের চেয়ে ৩৬ দশমিক ১০ শতাংশ বেশি।

গত অর্থবছরের সাত মাসেই ২ বিলিয়ন (২০০ কোটি) ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে দেশে। তবে চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের শুরু থেকেই রেমিট্যান্স প্রবাহে ভাটার টান লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এপ্রিল ছাড়া সব মাসেই ২ বিলিয়ন ডলারের কম রেমিট্যান্স এসেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের ১০ মাসে (জুলাই-এপ্রিল) এক হাজার ৭৩০ কোটি ৭৭ লাখ (১৭.৩০ বিলিয়ন) ডলার পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। গত ২০২০-২১ অর্থবছরের একই সময়ে পাঠিয়েছিলেন ২ হাজার ৬৬ কোটি ৫৮ লাখ ডলার (২০.৬৬ বিলিয়ন) ডলার।

এ হিসাবে জুলাই-এপ্রিল সময়ে রেমিট্যান্স কমেছে ১৬ দশমিক ২৪ শতাংশ। এই ১০ মাসে গড়ে এক দশমিক ৭৩ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে।

রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়াতে ২০১৯-২০ অর্থবছর থেকে ২ শতাংশ হারে নগদ প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এই প্রণোদনা বাড়িয়ে আড়াই শতাংশ করা হয়েছে।

অর্থসূচক/এমএস/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...