অধিনায়কত্ব চামচে করে খাইয়ে দেয়া যায় না: ধোনি

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) আবারও চেন্নাই সুপার কিংসের নেতৃত্বে ফিরেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। আর নেতৃত্বে ফিরেই ধোনি জানিয়েছেন, দলকে বাজে অবস্থা থেকে বাঁচাতেই পুনরায় অধিনায়ক হয়েছেন তিনি। এছাড়া গেল আট ম্যাচে রবীন্দ্র জাদেজার অধিনায়কত্বও মূল্যায়ন করেছেন তিনি।

এবারের মৌসুম শুরুর আগে হুট করে চেন্নাইয়ের অধিনায়কত্ব ছাড়েন ধোনি। নতুন অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করা হয় জাদেজার নাম। কিন্তু নেতা হিসেবে তেমন কিছুই করতে পারেননি জাদেজা।

চেন্নাইয়ের খেলা প্রথম ৮ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে তিনি মাত্র দুটিতে জেতাতে পেরেছেন। এদিকে ধোনি নেতা হিসেবে ফেরার পরই আসরে দুর্দান্ত ছন্দে থাকা সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে হারিয়েছে চেন্নাই।

ম্যাচ শেষে ধোনি বলেন, ‘এই মৌসুমের অনেক আগেই আমি জানিয়ে দিয়েছিলাম আর অধিনায়ক থাকব না। জাদেজা শুরু থেকে জানত ওকে দায়িত্ব নিতে হবে। তাই মানসিকভাবে নিজেকে তৈরি করার সময় পেয়েছিল। কোনো সিদ্ধান্তই হুট করে নেওয়া হয়নি। প্রথমবার অধিনায়কের দায়িত্ব সামলাচ্ছিল দেখে প্রথম কয়েক ম্যাচে ওকে পরামর্শ দিয়েছিলাম। এরপর এটাও বলেছিলাম, ওকেই সব দায়িত্ব নিতে হবে। কখনও যেন মনে না হয় একজন টস করছে আরেকজন মাঠে অধিনায়কত্ব করছে।’

‘অধিনায়কত্ব তো আর চামচে করে খাইয়ে দেয়া যায় না। একটা সময় পর্যন্ত সাহায্য করা যায়, এরপর দায়িত্বটা নিজেকেই নিতে হয়। ওর পারফরম্যান্স ভালো হচ্ছিল না। কারণ মাথায় সারাক্ষণ অধিনায়কত্বের কথা ঘুরত। এর প্রভাব পড়ছিল খেলায়। জাদেজার অধিনায়কত্বের চেয়ে দলের জন্য বেশি প্রয়োজন ওর ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং। এ কারণেই আমি আবার দায়িত্ব নিয়েছি। আমাদের উপকার হবে ও নিজের সেরাটা দিতে পারলে।’

আইপিএলের প্রথম আসর থেকেই চেন্নাইয়ের নেতৃত্বে ছিলেন ধোনি। অধিনায়ক হিসেবেও আইপিএলের ইতিহাসের সেরা তিনি। ধোনির অধীনে চেন্নাই ৫৯.৬ শতাংশ ম্যাচে জয় পেয়েছে। আর তার নেতৃত্বে আইপিএলের ৯ আসরেই ফাইনাল খেলেছে চেন্নাই। এর মধ্যে ২০১০, ২০১১, ২০১৮ ও ২০২১ আইপিএলের শিরোপা ঘরে তোলে দলটি।

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...