বিতর্কিত সেই সিদ্ধান্তের পর হোটেলরুমে ভাঙচুর করছিলেন পন্টিং

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) দিল্লি ক্যাপিটালস এবং রাজস্থান রয়্যালসের ম্যাচটিতে ওবেড ম্যাকয়ের করা হাই ফুল টস বিতর্ক নিয়ে মুখ খুলেছেন রিকি পন্টিং। উত্তেজনায় ঠাসা এমন মুহূর্তে হোটেল রুমে বসে কয়েকটি রিমোট কন্ট্রোল ভেঙে ফেলেছিলেন দিল্লির হেড কোচ।

ম্যাচটিতে রাজস্থান রয়্যালসের ছুঁড়ে দেয়া ২২৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করছিল দিল্লি। ম্যাচের এক পর্যায়ে শেষ ওভারে ৩৬ রান দরকার ছিল পান্তের দলের। তখন বোলিংয়ে আসেন ম্যাকয়। তার প্রথম তিন বলেই তিনটি ছক্কা হাঁকান রভম্যান পাওয়েল। তবে ওভারের তৃতীয় বলটি ছিল প্রশ্নবিদ্ধ। কেননা সেই বলটি ছিল পাওয়েলের কোমরের উপরে। নিয়ম অনুযায়ী সেটি নো বল হলেও মাঠের আম্পায়াররা সেটাকে নো বল হিসেবে ঘোষণা করেননি।

তারা সতর্ক করেছিলেন ম্যাকয়কে। এতেই ক্ষিপ্ত হন অধিনায়ক পান্তসহ দিল্লির কয়েকজন ক্রিকেটার। ডাগআউটে দাঁড়িয়ে উইকেটে থাকা পাওয়েল এবং কুলদিপ যাদবকে মাঠ ছেড়ে আসতে অনেকবার ইশারাও করেন পান্ত।

পাওয়েল এবং কুলদিপ শুরুতে মাঠ ছেড়ে আসতে চাইলেও পরে তারা আর মাঠ ছাড়েননি। দিল্লির কোচিং স্টাফ আমরে সেই সময়ে মাঠে প্রবেশ করেন। এই ম্যাচে দিল্লির হেড কোচ পন্টিং ডাগআউটে ছিলেন না। তার এক আত্মীয় করোনা পজিটিভ হওয়ায় সেই ম্যাচে হোটেল রুমে আইসোলেশনে ছিলেন তিনি।

ম্যাচটি নিয়ে পন্টিং বলেন, ‘এটা হতাশাজনক ছিল। আমার মনে হয় আমি তিন থেকে চারটা রিমোট কন্ট্রোল ভেঙে ফেলেছি। দেয়ালে পানির বোতল ছুঁড়ে মেরেছি (হাসি)। আপনি যখন সাইডলাইনে দাঁড়ানো থাকবেন, কোচ হিসেবে আপনি যখন কিছু নিয়ন্ত্রণ না করতে পারবেন সেটা ভিন্ন কথা। কিন্তু আপনি যখন মাঠেই থাকবেন না সেটা আরও বেশি হতাশাজনক।’

খেলা পুনরায় গড়ালে শেষ তিন বলে আর কিছুই করতে পারেননি পাওয়েল। ৮ উইকেটে ২০৭ রান করে থামে দিল্লি। রাজস্থান ম্যাচটি জেতে ১৫ রানে। বিধ্বংসী সেঞ্চুরি করে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন জস বাটলার।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...