নোবেল শান্তি পুরস্কারে মনোনয়ন পেলেন পাকিস্তানের ড. আমজাদ

চলতি বছর ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান সবমিলিয়ে বিশ্বের ৩৪৩ প্রার্থীকে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছে। এ তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে পাকিস্তানের সুদ-মুক্ত ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির প্রতিষ্ঠাতা ড.আমজাদ সাকিবের নামও। দারিদ্র বিমোচনে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য তিনি এ মনোনয়ন পেয়েছেন। পাকিস্তানভিত্তিক টিভি চ্যালেন জিও নিউজ এ তথ্য জানিয়েছে।

২০২২ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য সারা বিশ্বের ৩৪৩ প্রার্থীকে মনোনীত করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন ২৫১ জন ব্যক্তি ও ৯২টি সংস্থা।

দেশটির ইসলামী শরিয়াভিত্তিক ক্ষুদ্রঋণ প্রকল্প আখুয়াত ফাউন্ডেশনের উদ্যোক্তা আমজাদ উন্নয়নের বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেন, আমার পরিষেবাগুলো এই ধরনের পুরস্কারের বাইরে এবং সম্পূর্ণরূপে আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য।

কোনো ব্যক্তি নিজেকে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীত করতে পারে না এবং পুরো এই প্রক্রিয়াটির কোথাও কোনো লবিং জড়িত নেই বলে জানান ড. আমজাদ।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “বিদেশের কোনো কর্মকর্তা হয়তো আমার নামটি পুরস্কারের জন্য সুপারিশ করেছেন, কারণ সারা বিশ্বের মানুষ আমার মানবিক সেবার সঙ্গে পরিচিত… কিন্তু আমি এ সম্পর্কে অবগত ছিলাম না।”

র‍্যামন ম্যাগসাইসে ও কমনওয়েলথ পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন ড. আমজাদ। সুদ এবং জামানতবিহীন ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির উদ্যোগ দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে লক্ষ লক্ষ দরিদ্র পরিবারকে স্বাবলম্বী হতে সহায়তা করেছে। এ পর্যন্ত অন্তত ৯০০ মিলিয়ন ডলার সমমূল্যের ঋণ বিতরণ করেছে তার প্রতিষ্ঠান।

অর্থসূচক/এইচডি/মএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...