নতুন অস্ত্রের পরীক্ষা চালালো উত্তর কোরিয়া

চলতি বছর একের পর এক অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া, যার মধ্যে এমনকি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রও ছিল৷ ২০১৭ সালের পর এ ধরনের অস্ত্রের প্রথম পরীক্ষা ছিল এটি৷ এবার যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সামরিক মহড়ার আগে কৌশলগত পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর ঘোষণা দিয়েছে দেশটি৷

উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংবাদ সংস্থা কেসিএনএ-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘নতুন এই অস্ত্রের ফলে দূর পাল্লার আর্টিলারি ইউনিটের যুদ্ধ সক্ষমতা উন্নত হয়েছে এবং ‘কৌশলগত পরমাণু অপারেশনের’ নৈপুণ্য বৃদ্ধি পেয়েছে৷’ প্রতিবেদনে অস্ত্রের পরীক্ষা সফল হয়েছে উল্লেখ করা হলেও কোথায় এবং কখন তা চালানো হয়েছে সেটি বলা হয়নি৷

তবে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, শনিবার তারা দুইটি ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্ত করেছে, যেগুলো ভূমি থেকে ২৫ কিলোমিটার উপর দিয়ে ১১০ কিলোমিটার পর্যন্ত উড়ে যায়৷

উল্লেখ্য, একদিন আগেই প্রতিষ্ঠাতা কিম ইল সুংয়ের ১১০তম জন্মদিন পালন করেছে উত্তর কোরিয়া৷ পর্যবেক্ষকরা ধারণা করেছিলেন বড় ধরনের পরীক্ষা বা সামরিক কুচকাওয়াজের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করবে পিয়ংইয়ং৷ তবে অস্ত্র পরীক্ষা চালালেও এ উপলক্ষে কুচকাওয়াজ আয়োজনের খবর পাওয়া যায়নি৷

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, পরীক্ষা চালানো অস্ত্রটি নতুন ধরনের স্বল্প পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র৷ উত্তর কোরিয়ার সংবাদপত্র রডং সিনমুন এ প্রকাশিত ছবিতে দেশটির নেতা কিম জং উনকে অস্ত্র উৎক্ষেপণ কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করতে দেখা গেছে৷ কেসিএনএ এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে কিম দেশটির সামরিক গবেষণা দলকে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এবং পরমাণু যুদ্ধ বহরকে সক্ষমতা আরো জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন৷

এদিকে স্যাটেলাইটের ছবিতে উত্তর কোরিয়ার পুঙ্গে-রি পারমাণবিক পরীক্ষা কেন্দ্রে নতুন কার্যকলাপের ইঙ্গিত পাওয়া গেছে৷ ২০১৮ সালে ট্রাম্প-কিম বৈঠকের আগে এই স্থাপনাটি ধ্বংসের কথা জানিয়েছিল পিয়ংইয়ং৷

যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তাদের ধারণা, উত্তর কোরিয়া খুব দ্রুতই পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষাও চালাতে পারে৷ সূত্র: ডিডাব্লিউ, এএফপি, রয়টার্স

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...