রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড: ৩শ বসতি পুড়ে ছাই, শিশুর মৃত্যু

কক্সবাজারের উখিয়া ৫ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে তিন শতাধিক রোহিঙ্গা বসতি পুড়ে ছাই হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আরও শতাধিক বসতি।

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে উখিয়ার লম্বাশিয়া ৫ নম্বর ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পরে দুই ঘণ্টার চেষ্টায় সাড়ে ৫টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

অগ্নিকাণ্ডে এক শিশুর মৃত্যু হলেও দিনেরবেলা অগ্নিকাণ্ড হওয়ায় তেমন হতাহত হয়নি বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত ত্রাণ ও শরণার্থী প্রত্যাবাসন কমিশনার ডা. শামসুদ্দৌজা নয়ন।

তিনি বলেন, ‘ক্যাম্পের একটি ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে জেনেছি। বাতাস থাকায় দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এক শিশু মারা গেছে বলে জানা গেলেও তার পরিচয় এখনো নিশ্চিত করা যায়নি। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও এখনো জানা যায়নি।’

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উখিয়া স্টেশনের কর্মকর্তা মো. এমদাদুল হক বলেন, ‘উখিয়ার ৫ নম্বর ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে আমাদের টিম ঘটনাস্থলে রওনা দেয়। অন্য এলাকার টিম এসে কাজে যোগ দেয়। প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।’

১৪ এপিবিএনের (আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন) অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) নাইমুল হক জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে চেষ্টা চলছে।

এরআগে গত ৯ জানুয়ারি উখিয়ার শফিউল্লাহ কাটা এলাকার একটি শরণার্থী শিবিরে এক অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ৬০০ ঘর পুড়ে যায়। ওই ঘটনায় তিন হাজারের বেশি মানুষ আশ্রয় হারান।

তার আগে ২ জানুয়ারি উখিয়া বালুখালী ২০ নম্বর ক্যাম্পের জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা (আইওএম) পরিচালিত করোনা হাসপাতালের জেনারেটর থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এছাড়া গত বছরের ২২ মার্চ উখিয়ার বালুখালীতে আগুনে পুড়ে মারা যান ১৫ জন রোহিঙ্গা। তখন ১০ হাজারের মতো ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...