আচমকা টেস্টের অধিনায়কত্ব ছাড়লেন কোহলি

স্বেচ্ছায় টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছেড়েছিলেন বিরাট কোহলি। এরপর একপ্রকার জোর করেই ওয়ানডের অধিনায়কত্ব কেড়ে নেয়া হয়েছিল তার। এবার আচমকা টেস্টের অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটার।

একদিন আগেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ২-১ ব্যবধানে হেরেছে ভারত। এবার কোহলির অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা অবাকই করেছে সবাইকে। এর আগে ২০১৪ সালে প্রথমবারের মতো ভারতকে টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। দীর্ঘ ৭ বছর পর সাদা পোশাকের নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এর ফলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপ টাউন টেস্টই অধিনায়ক হিসেবে কোহলির শেষ টেস্ট হয়ে রইল।

টুইটারে দীর্ঘ এক বিবৃতিতে টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দেন কোহলি। তিনি লিখেছেন, ‘৭ বছরের কঠোর পরিশ্রম, শ্রম এবং দলকে সঠিক পথে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রতিদিনের নিরলস অধ্যবসায় থেকে সরে যাওয়ার সময় এসেছে। সবকিছুকেই কোনো না কোনো সময় ছেড়ে যেতে হয় এবং আমার জন্য ভারতের টেস্টের অধিনায়কত্বের শেষ এখানেই।’

দলের প্রতি নিবেদন নিয়ে কোহলি বলেন, ‘অনেক উত্থান ও পতনের মধ্য দিয়ে গিয়েছি এই যাত্রায় কিন্তু কখনোই চেষ্টার অভাব বা বিশ্বাসের অভাব হয়নি। আমি যা করি সবকিছুতে ১২০ শতাংশ দিতে বিশ্বাসী এবং আমি যদি না পারি তবে আমি জানি এটা করা ঠিক নয়। আমার হৃদয়ের স্বচ্ছতা আছে এবং আমি আমার দলের প্রতি কখনও অসৎ হতে পারি না।’

কোহলির অধীনে ৬৮টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে ভারত। এর মধ্যে ৪০টি ম্যাচেই জয় পেয়েছে তার দল। এর মধ্যে ১৭টি ম্যাচে হার ও ১১টি ম্যাচে ড্র করেছে কোহলির দল। শতাংশের হিসেবে ভারত তার অধীনে জিতেছে ৫৮.৮২ ভাগ ম্যাচে। সব মিলিয়ে ক্রিকেট ইতিহাসের তৃতীয় সর্বোচ্চ ম্যাচ জয়ী অধিনায়ক কোহলি। সাদা পোশাকে সবচেয়ে সফল অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথ। তার অধীনে দক্ষিণ আফ্রিকা জিতেছে ৫৩ ম্যাচে। দ্বিতীয় স্থানে আছেন অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিং। তার অধীনে অজিরা জয় পেয়েছে ৪৮ ম্যাচে। তাদের পরই তিন নম্বরে অবস্থান কোহলির।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...