ট্রলারডুবি: ভেসে উঠলো আরও ২ লাশ

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা ধলেশ্বরী নদীতে ডুবে যাওয়া ট্রলারের নিখোঁজদের মধ্য থেকে সোমবার (১০ জানুয়ারি) সকালে শিশুসহ আরও দুই জনের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। সকালে ভাসমান অবস্থায় লাশ দুটি পাওয়া যায়।

এর আগে, রোববার নিখোঁজ ১০ যাত্রীর মধ্যে ছয় জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। সোমবারের উদ্ধার হওয়া দুই জন নিয়ে মোট আট জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন জানান, সকালে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ধলেশ্বরী নদীতে ষষ্ঠ দিনের উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে। লাশ ভাসতে দেখে এক শিশু ও এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে তারা মা ও সন্তান।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রিফাত ফেরদৌস জানান, নিহতদের প্রতি পরিবারকে জেলা প্রাশাসনের পক্ষ থেকে ২৫ হাজার টাকা করে ও আহতদের ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ৫ জানুয়ারি সকাল ৯টায় ধর্মগঞ্জে ধলেশ্বরী নদীতে বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী এম বি ফারহান-৬ যাত্রীবাহী লঞ্চের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবে যায়। এতে অনেকে সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও নিখোঁজ হন ১০ জন। এ ঘটনায় লঞ্চের মাস্টার মো. কামরুল হাসান, চালক মো. জসিমউদ্দিন ভূইয়া ও সুকানী মো. জসিম মোল্লাকে আসামি করে ফতুল্লা থানায় মামলা করেন বিআইডব্লিউটিএ’র উপপরিচালক (নৌ নিরাপত্তা বিভাগ) বাবু লাল বৈদ্য। লঞ্চটিও জব্দ করা হয়। গ্রেপ্তারের পরে লঞ্চের চালক, মাস্টার ও সুকানিকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...