হাওর, দ্বীপ ও চর এলাকার ব্যাংক কর্মকর্তাদের ভাতা দেওয়ার নির্দেশ

হাওর, দ্বীপ ও চর এলাকার স্থায়ী ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাসিক ভাতা দিতে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নির্দেশনা অনুযায়ী, প্রতি মাসে এক হাজার ৬৫০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা ভাতা পাবেন এসব এলাকার ব্যাংক কর্মকর্তারা।

আজ রোববার (০৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে এই নির্দেশনা দিয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, হাওর, দ্বীপ ও চর হিসেবে ঘোষিত ১৬টি উপজেলায় রাষ্ট্রমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহে কর্মরত স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে মাসিক হাওর, দ্বীপ ও চড়ভাতা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। এই সংক্রান্ত অর্থ মন্ত্রণালয়ের ঘোষিত নির্দেশনা যথাযথভাবে বাস্তবায়নে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দ্ওেয়া হয়েছে।

এর আগে, এসব উপজেলায় কর্মরত সরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তাদের জন্য আলাদা ভাতা দিতে নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের সেই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছিল, হাওর, দ্বীপ ও চর উপজেলার অবস্থিত রাষ্ট্র মালিকানাধীন ব্যাংকের স্থায়ী কর্মকর্তা/কর্মচারীদের ভাতা প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। জাতীয় বেতন স্কেল, ২০১৫ অনুযায়ী,৭ম ও তদূর্ধ্ব গ্রেডের কর্মকর্তার ভাতার পরিমাণ পাঁচ হাজার টাকা। ৮ম গ্রেডের কর্মকর্তারা পাবেন চার হাজার ৬শ টাকা, ৯ম গ্রেডের কর্মকর্তাদের চার হাজার ৪শ টাকা। ২০ তম গ্রেডের কর্মকর্তা পাবেন এক হাজার ৬৫০ টাকা ভাতা।

এর আগে, ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে যোগাযোগ ব্যবস্থা, শিক্ষা, চিকিৎসা, বিদ্যুৎ ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা বিবেচনা করে পার্বত্য এলাকা বহির্ভূত ১৬ উপজেলাকে হাওর, দ্বীপ ও চর উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করে গেজেট জারি করে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ।

সেই প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ১৬ উপজেলা হলো কিশোরগঞ্জের ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম; চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ, কক্সবাজারের কুতুবদিয়া, নোয়াখালীর হাতিয়া, সিরাজগঞ্জের চৌহালী, কুড়িগ্রামের রৌমারী ও চর বাজিবপুর, পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী, ভোলার মনপুরা, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা, শাল্লা ও দোয়ারাবাজার; হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ এবং নেত্রকোনার খালিয়াজুরী।

অর্থসূচক/মৃত্তিকা সাহা/ এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...