সাংবাদিক রুনির মায়ের ইন্তেকাল, আবারও মা হারালো মেঘ

প্রয়াত সাংবাদিক রুনির মা নুরুন নাহার মির্জা আর নেই। আজ বুধবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে মারা যান তিনি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনির হত্যার পর তাদের একমাত্র সন্তান মেঘকে মায়ের স্নেহ-ভালোবাসা দিয়ে আগলে রেখেছিলেন তিনিই। মেঘও ছোটবেলায় তার নানুকেই মা বলে ডাকতো। তাই তার মৃত্যুর মধ্য দিয়ে আবারও মেঘ তার মাকে হারালো।

আজ বাদ জোহর ইন্দিরা রোডের বাসার কাছে পশ্চিম রাজাবাজার জামে মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে আজিমপুর কবরস্থানে সাগর-রুনির কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে বলে জানিয়েছেন রুনির ভাই নওশের আলম।

নওশের জানান, মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৪ বছর। তিনি শারীরিক নানা জটিলতা বিশেষ করে কিডনি সমস্যা নিয়ে মাস খানেক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। সকালেই তার মরদেহ ঢাকার ইন্দিরা রোডের বাসায় নেওয়া হয়েছে। মেঘ ছাড়াও মুত্যুকালে তিনি তিন ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

রুনির ভাই আরও বলেন, আমার মায়ের খুব ইচ্ছে ছিল রুনি হত্যার বিচার দেখে যাওয়ার, কিন্তু সেটা আর হলো না। তার আগেই মা চলে গেলেন।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের ভাড়া বাসায় সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি নৃশংসভাবে খুন হন। সাগর সরওয়ার মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক ছিলেন। আর মেহেরুন রুনি এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ছিলেন। হত্যাকাণ্ডের সময় বাসায় ছিল তাদের সাড়ে চার বছরের ছেলে মাহির সরওয়ার মেঘ।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...