৩ বলের ব্যবধানে দুজনকে ফেরালেন এবাদত

স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডকে ৩২৮ রানে অল আউট করে দেয়ার পর, মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের তৃতীয় দিন ৪৫৮ রান করে থেমেছে বাংলাদেশ। ফলে প্রথম ইনিংসে ১৩০ রানের লিড পেয়েছে টাইগাররা।

দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম বলেই ফিরতে পারতেন কিউই অধিনায়ক টম লাথাম। তাসকিনের আহমেদের বল বাঁহাতি এই ব্যাটারের প্যাডে লাগলেও আউট দেননি আম্পায়ার। রিভিউয়ে দেখা যায় বলটি স্টাম্প মিস করায় বেঁচে যান কিউই অধিনায়ক।

শরিফুলের শর্ট অব লেংথের বল ইনসাইড এজ হয়ে গালি এবং সেকেন্ড স্লিপের মাঝ দিয়ে চলে যাওয়ায় আরও একবার বেঁচে যান লাথাম। ১২০ রানে পিছিয়ে থেকে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় নিউজিল্যান্ড। বিরতি থেকে ফিরেই কিউই ওপেনার টম লাথামকে বোল্ড করে ফেরান তাসকিন। তারা দলীয় ২৯ রানে প্রথম উইকেট হারায়।

এরপর ডেভন কনওয়েকে নিয়ে বেশ ভালোই সামাল দিচ্ছিলেন ইয়ং। যদিও চা পানের বিরতির আগে এবাদত হোসেনের বলে ব্যক্তিগত ১৩ রানে ফিরতে হয়েছে কনওয়েকে। এবাদতের ইনসাইড এজ হওয়া বল গালিতে ডাইভিং ক্যাচে মুঠোবন্দি করেছেন সাদমান ইসলাম।

তারপর ইয়ং এবং টেলরের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে সহজেই লিডের ছোঁয়া পায় নিউজিল্যান্ড। হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন ইয়ং। ইয়ং-টেলরের ৭৩ রানের জুটি ভাঙেন এবাদত। ৬৯ রান করা ইয়ংকে দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করেন তিনি। একই ওভারে হেনরি নিকোলসকেও (০) বোল্ড করেন এবাদত। তিন বলের ব্যবধানে দুই ব্যাটারকে বোল্ড করে কিউইদের চেপে ধরেন তিনি।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...