অবশেষে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে চালু হলো পিসিআর ল্যাব

প্রবাসী বাংলাদেশিদের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের পর অবশেষে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরীক্ষার জন্য চালু হয়েছে আরটি পিসিআর ল্যাব। এর মধ্য দিয়ে বিমানবন্দরটিতে ফিরছে চট্টগ্রাম-সংযুক্ত আরব আমিরাত রুটে চলাচলকারী ফ্লাইট।

রোববার (২ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীর এই ল্যাবের উদ্বোধন করেন।

তিনি বলেন, আগামীকাল (সোমবার) থেকে ল্যাবটিতে করোনা পরীক্ষা শুরু হবে। প্রাথমিকভাবে চারটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ল্যাব স্থাপন করেছে। দুবাইগামী যাত্রীরা কোনো ফি ছাড়াই যাত্রার কয়েকঘণ্টা আগে এখানে করোনা টেস্ট করাতে পারবেন। তবে তাদের পরিবর্তে টেস্টপ্রতি এক হাজার ৬০০ টাকা করে ফি প্রদান করবে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, করোনা সংক্রমণের পর গত বছরের ৪ আগস্ট যাত্রার ছয় ঘণ্টা আগে বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাবে টেস্ট ছাড়া দুবাইয়ে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয় দেশটি। এদিকে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব না থাকায় বিপাকে পড়েন প্রবাসীরা। এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তারা আন্দোলন করে আসছিলেন।

পরে সরকার চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের উদ্যোগ নেয়। এ নিয়ে গত ১৬ নভেম্বর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালকের (প্রশাসন) সভাপতিত্বে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরদিন চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপনে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের নিয়ে আরেকটি ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় আগ্রহী ১৭টি প্রতিষ্ঠানের আবেদন যাচাই–বাছাই করে একটি খসড়া তালিকা প্রস্তুত করা হয়।

এরপর ৫ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের পরিচালক হাসান শাহরিয়ার কবীর চারটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে ল্যাব স্থাপনের অনুমতি দেয়। এগুলো হলো- চট্টগ্রামের শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরি ক্লিনিক, কুমিল্লার মডার্ন হসপিটাল প্রাইভেট লিমিটেড, ঢাকার ল্যাবএইড লিমিটেড ও ঢাকার প্রেসক্রিপশন পয়েন্ট। অনুমতি পাওয়ার পর তারা চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে যন্ত্রপাতি স্থাপনের কাজ শুরু করে।

সবশেষ আজ (রোববার) চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসির উদ্দিন মাহমুদ, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসের (বিআইটিআইডি) ল্যাব প্রধান ডা. শাকিল আহমেদ, শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক উইং কমান্ডার মো. ফরহাদ হোসেন খান, চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর চট্টগ্রামের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মহসিন ও বন্দর স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাবেদ প্রমুখ।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...