ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি হাঁকালেন জয়

মাউন্ট মঙ্গুনুইতে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৫৮ রান নিয়ে প্রথম দিনের খেলা শেষ করেছিল স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনেই তারা অল আউট হয়েছে ৩২৮ রানে।

জবাবে খেলতে নেমে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৫ রান করে মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। বিরতি থেকে ফিরে দারুণ খেলছিলেন দুই ওপেনার সাদমান ইসলাম ও মাহমুদুল হাসান জয়। যদিও পানি পানের বিরতির ঠিক পড়েই নেইল ওয়েগনারের বলে তার হাতেই ক্যাচ তুলে ২২ রান করে ফিরে যান সাদমান।

এর আগে একবার জীবনও পেয়েছেন সাদমান। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে ট্রেন্ট বোল্টের শেষ বলে স্লিপে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন এই বাঁহাতি ওপেনার। যদিও সেই বল অল্পের জন্য মুঠোবন্দি করতে পারেননি টিম সাউদি।

সাদমান ফিরে গেলে নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখার দিকে মনোযোগ দেন জয়। এই দুজনের ব্যাটে ভর করে ১ উইকেট হারিয়ে দলীয় শতক পূর্ণ করে বাংলাদেশ। জয় ধীর স্থীর খেললেও ৫০ এর ওপরে স্ট্রাইক রেটে খেলে মাত্র ৯০ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন শান্ত। রাচীন রবিন্দ্রকে কাউ কর্ণার দিয়ে ছক্কা মেরে হাফ সেঞ্চুরিতে পৌঁছান এই ব্যাটার। শান্তর হাফ সেঞ্চুরির পর হাফ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন জয়। ক্যারিয়ারে এটাই তার প্রথম হাফ সেঞ্চুরি।

এর আগে দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই কিউই শিবিরে আঘাত হানেন টাইগার পেসার শরিফুল ইসলাম। তিনি ৪ রান করা রাচিন রবীন্দ্রকে ফেরান সাদমান ইসলামের ক্যাচ বানিয়ে। এই টাইগার পেসারের অফ স্টাম্পের বাইরের বলে খোঁচা দিয়ে থার্ড স্লিপে ক্যাচ দেন রবীন্দ্র। এরপর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি কাইল জেমিসন। তিনি মেহেদী হাসান মিরাজের বলে লং অনে ধরা পড়েছেন সেই সাদমানের হাতে।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...