‘যেমন কর্ম তেমন ফল’, রুটকে স্মৃতিচারণ করালেন কুক

অ্যাডিলেড টেস্টের চতুর্থ দিনে মিচেল স্টার্কের করা একটি ডেলিভারি সেফটি গার্ডে আঘাত লাগে জো রুটের। তারপর ব্যথায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। অনাকাঙ্খিত হাস্যরসাত্মক পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার কারণে মৃদু হেসে ওঠেন উইকেটের অপরপ্রান্তে থাকা বেন স্টোকসসহ ফিল্ডিংয়ে থাকা অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা। টিভির পর্দায় এমন ঘটনা দেখে রুটকে পুরানো একটি ঘটনা মনে করিয়ে দিয়েছেন তারই সাবেক সতীর্থ অ্যালিস্টার কুক।

২০১৫ সালের অ্যাশেজের একটি ম্যাচে স্লিপ পজিশনে ফিল্ডিং করার সময় স্পর্শকাতর জায়গায় বল লেগেছিল কুকের। তার পাশেই ফিল্ডিংয়ে ছিলেন রুট। কুককে কাৎরাতে দেখে হেসে ফেলেছিলেন তিনিও। এই ঘটনা রুটকে স্মরণ করিয়ে হাস্যরসাত্মক ভঙ্গিমায় কুক বলেন, ‘আমি শুধু বলতে চাই, যেমন কর্ম তেমন ফল! আমি কিন্তু ঠিক ছিলাম সেদিন। আমি তখন দুই সন্তানের পিতা ছিলাম। আমার জানা নেই, রুটের এখন কয় সন্তান আছে!’

চলমান টেস্টে ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে রুটের সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটে। স্টার্কের বল তার স্পর্শকাতর জায়গায় আঘাত হানার কিছুক্ষণ পর দেখা যায়, সেফটি গার্ড ফেটে গেছে রুটের। এমন ঘটনায় হাস্যরসাত্মক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচটিতে। বোলার স্টার্ক থেকে শুরু করেন স্টিভ স্মিথ, মার্নাস ল্যাবুশেন, অ্যালেক্স ক্যারি; এমনকি রুটের সতীর্থ স্টোকসও এমন কাণ্ডে হেসে ওঠেন। সেফটি গার্ড বদলে মাঠে নামা রুট অবশ্য বেশিক্ষন ব্যাটিং করতে পারেননি। ৬৭ বলে ২৪ রান করে ফিরে যান তিনি।

চলমান টেস্টে সুবিধাজনক অবস্থানে নেই ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে ৪৭৩ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ২৩০ রান করে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে প্রথম ইনিংসে ২৩৬ রান করা ইংলিশরা শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ছয় উইকেটে ১২০ রান করেছে। ম্যাচ জিততে তাদের প্রয়োজন আরও ৩২৬ রান। আর শেষ দুই সেশনে অস্ট্রেলিয়ার দরকার চার উইকেট।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...