বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে ৩ শিক্ষার্থী নিহত

চাঁদপুরের কচুয়ায় বিআরটিসির যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে তিন শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সিএনজিচালকসহ আরও দুজন গুরুতর আহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সকাল ৮টায় হাজীগঞ্জ-কচুয়া-গৌরিপুর সড়কের কচুয়া উপজেলার কড়ইয়া নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- উপজেলার দোয়াটি গ্রামের রাজকুমারের মেয়ে কুমিল্লা ভিক্টরিয়া কলেজের মার্স্টাসের শিক্ষার্থী উর্মি মজুমদার (২৪) ও একই কলেজের শিক্ষার্থী কোয়া গ্রামের রিফাত (২৩) এবং নিশ্চিতপুর গ্রামের ছেলে ও চাঁদপুর সরকারি কলেজের অনার্সের ছাত্র মান্নানের ছেলে সাদ্দাম (২২)। আহতরা হলেন, বালিয়াতলি গ্রামের মোখলেসুর রহমানের ছেলে ইব্রাহিম (২৫), নিশ্চিতপুর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে মনির (৩৫)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বিআরটিসি বাস ও হাজীগঞ্জগামী সিএনজিচালিত অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই সিএনজিতে থাকা সাদ্দাম হোসেন ও রিফাত নামে দুজন মারা যান। গুরুতর আহত অবস্থায় ৩ জনকে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান স্থানীয়রা। সেখানে জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় উর্মি মজুমদার নামের একজন মারা যান।
আহত অপর দুজনের মধ্যে ইব্রাহিম নামের একজন কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক মনির হোসেনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, কচুয়া থেকে হাজীগঞ্জ যাওয়ার পথে কড়ইয়া এলাকায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই দুই জন মারা যান। স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহত কয়েকজনকে উদ্ধার করে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে সেখানে আরও একজনের মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থলে নিহত দুই জনের মরদেহ বাড়িতে নিয়ে গেছেন স্বজনরা। ঘটনাস্থল থেকে বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে বাসচালক পালিয়ে গেছেন।

এর আগে গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে চাঁদপুর সদরের ময়ামায়া এলাকায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই এসএসসি পরীক্ষার্থী নিহত হয়।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •