বাংলাদেশসহ ৪ দেশে টিকা রপ্তানি শুরু করেছে ভারত

দেশের শতকরা কমপক্ষে ৭৭ ভাগ মানুষকে করোনা ভাইরাসের কমপক্ষে এক ডোজ টিকা দেয়ার পর বাংলাদেশসহ এশিয়ার চারটি দেশে টিকা রপ্তানি শুরু করেছে ভারত। অন্য দেশগুলো হলো- মিয়ানমার, নেপাল ও ইরান। টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এ বছর এপ্রিল-মে সময়ে ভারতে দ্বিতীয় দফা করোনা ঢেউ আঘাত হানে। তাতে ভয়াবহ এক অবস্থার সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশটির সরকার টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। আভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটানোর জন্য বাণিজ্যিক চুক্তি স্থগিত করে ভারত।

ভারতে এখন বেশ কিছু টিকা পাইপলাইনে আছে। এর মধ্যে আছে কোভাভ্যাক্স, কোরবেভ্যাক্স, জাইকোভডি, জেনোভাস এমআরএনএ। এগুলো অনুমোদনের বিভিন্ন পর্যায়ে আছে। সেরাম ইনস্টিটিউটের টিকার প্রথম ৫ কোটি ডোজ এ সপ্তাহেই ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার কথা রয়েছে। তবে ভারতের ডিসিজিআই, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অথবা যুক্তরাষ্ট্রের এফডিএ’র পক্ষ থেকে সবুজ সঙ্কেতের ওপর নির্ভর করছে তা।

যদিও ভারত সরকার অধিক পরিমাণ ভারতীয়কে টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেয়ার দিকে দৃষ্টি দিয়েছে, তবু সরবরাহে টান পড়বে বলে মনে হয় না। এই মুহূর্তে টিকা উৎপাদনকারীরা তাদের উৎপাদন কিছুটা বাড়িয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ, তারা উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে বিশ্বের কাছে রপ্তানি বাড়াতে চায়। ওদিকে ভারতে করোনা ভাইরাসের তৃতীয় ঢেউ শুরুর হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় টিকার যে স্বল্পতা দেখা দিয়েছিল, এক্ষেত্রেও তা ঘটতে পারে বলে ভয় আছে অনেকের।

তবে অ্যাক্সিওস ওয়েবসাইটকে সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার প্রধান আধার পুনাওয়ালা এ সপ্তাহে বলেছেন, তিনি আশা করছেন কোভিশিল্ড নামের টিকার ডোজ আফ্রিকার দেশগুলোতে পৌঁছে যাবে শিগগিরই। কারণ, ভারত এরই মধ্যে কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটিজে রপ্তানি শুরু করেছে। এর মধ্যে প্রথম ডোজের লট আফ্রিকায় অবতরণ করেছে।

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •