উইলিয়ামসনদের স্বপ্ন ভেঙে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া

৮৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে নিউজিল্যান্ডকে শিরোপা জেতানোর স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন কেন উইলিয়ামসন। তবে কিউই অধিনায়কের সেই স্বপ্ন পিষিয়ে দিয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার ও মিচেল মার্শ। তাঁদের দুজনের জোড়া হাফ সেঞ্চুরিতে নিউজিল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে অজিরা। তাতে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা ছুঁয়ে দেখল অস্ট্রেলিয়া।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জয়ের জন্য ১৭৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই ট্রেন্ট বোল্টের বলে আউট হয়েছেন অ্যারন ফিঞ্চ। ৭ বলে মাত্র ৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন অজি অধিনায়ক।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে অবশ্য প্রতিরোধ গড়ে তুলেন ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্শ। তারা দুজনে মিলে যোগ করেন ৮৭ রান। হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পর বোল্টের বলে আউট হয়েছেন ওয়ার্নার। ৩৮ বলে ৫৩ রানের ইনিংস খেলে বাঁহাতি এই ওপেনার ফিরলে ভাঙে তাদের এই জুটি।

অস্ট্রেলিয়াকে শিরোপা জেতাতে বাকি কাজটা সারেন মার্শ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ৮ উইকেটের বড় জয়ের দিনে মার্শ ৫০ বলে ৭৭ রানে অপরাজিত ছিলেন। তাকে সঙ্গ দেয়া ম্যাক্সওয়েল অপরাজিত ছিলেন ১৮ বলে ২৮ রান করে। নিউজিল্যান্ডের হয়ে দুটি উইকেট নিয়েছেন বোল্ট।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে দারুণ শুরুর আভাস দেন দুই ওপেনার ড্যারিল মিচেল ও মার্টিন গাপটিল। তবে ইনিংসের চতুর্থ ওভারে মিচেল ফিরলে ভাঙে তাদের ২৮ রানের উদ্বোধনী জুটি। ১১ রান করা মিচেল ফেরার পর নিউজিল্যান্ডের ব্যাটারদের খানিকটা চেপে ধরে অজি বোলাররা।

সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নিজেদেরকে মানিয়ে নিতে থাকেন গাপটিল ও উইলিয়ামসন। যদিও নিজের সহজাত ভূমিকায় ব্যাটিং করতে পারেননি গাপটিল। ৩৫ বলে ২৮ রান করে অ্যাডাম জাম্পার বলে আউট হয়েছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। ইনিংসের ১১তম ওভারে স্টার্কের বলে জস হ্যাজেলউডের হাতে জীবন পাওয়ার পর নিজের খোলস ছেড়ে বেড়িয়ে আসেন উইলিয়ামসন।

স্টার্কের এক ওভারে ২২ রান নেয়ার পর অন্য বোলারদের বিপক্ষেও আক্রমণাত্বক ব্যাটিং করেন। ৩২ বলে হাফ সেঞ্চুরি করা উইলিয়ামসন অবশ্য ফিরেছেন ৮৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭২ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে তিনটি উইকেট নিয়েছেন হ্যাজেলউড

 

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •