কয়লা ব্যবহার বন্ধে প্রতিশ্রুতি ১৯০ দেশ-সংস্থার

বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধির পেছনে অন্যতম প্রধান কারণ ধরা হয় কয়লা ও জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহারকে। কিন্তু এবারের জাতিসংঘ জলবায়ু পরির্বতন বিষয়ক সম্মেলনে অন্তত ১৯০টি দেশ ও সংস্থা কয়লার ব্যবহার বন্ধে রাজি হয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য। তবে এমন সুখবরের মধ্যেই হতাশা ছড়িয়েছে চীন, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ কয়লা ব্যবহারকারী এসব দেশ জীবাশ্ম জ্বালানি ব্যবহার বন্ধের চুক্তিতে সই করেনি। খবর বিবিসির।

ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে, কপ২৬ সম্মেলনে কয়লার ব্যবহার বন্ধে রাজি হওয়া দেশগুলোর মধ্যে পোল্যান্ড, ভিয়েতনাম, চিলির নাম রয়েছে। তারা নতুন করে কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে আর কোনো বিনিয়োগ করবে না বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

যুক্তরাজ্য জানিয়েছে, চুক্তি অনুসারে ধনীদেশগুলো ২০৩০’র দশক এবং তুলনামূলক দরিদ্ররা ২০৪০’র দশকের মধ্য কয়লা ব্যবহার থেকে সরে আসবে।

সম্মতিপত্রে ৪০টির বেশি দেশ সই করেছে। এর মধ্যে অন্তত ১৮টি দেশ প্রথমবারের মতো কয়লায় নতুন বিনিয়োগ বন্ধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ব্রিটিশ জ্বালানিমন্ত্রী কোয়াসি কোয়ার্টেং বলেছেন, কয়লা ব্যবহারের সমাপ্তি দেখা যাচ্ছে। বিশ্ব সঠিক পথেই চলছে। আমরা কয়লার ব্যবহার বন্ধ এবং পরিচ্ছন্ন জ্বালানিতে পরিচালিত ভবিষ্যৎ গড়তে পরিবেশগত ও অর্থনৈতিক সুবিধা গ্রহণে প্রস্তুত।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...