রাজধানীতে প্রতিদিন ৪০ হাজার শিক্ষার্থীকে দেওয়া হবে টিকা

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী স্কুলগামী শিশুদের টিকা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সোমবার (১ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, ঢাকায় প্রাথমিক পর্যায়ে ৮টি স্কুলে টিকা দেওয়া শুরু করেছি। প্রতিদিন বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে পাঁচ হাজার করে ৪০ হাজার টিকা দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ১২ বছরের নীচে এখনই টিকা নয়। ড্রপ আউট হোক আর যেই হোক সবার টিকা প্রয়োজন, ব্যবস্থা করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, ফাইজারের ৯৬ লাখ টিকা পেয়েছি, হাতে আছে আরও ৮২ লাখ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে তারা আগামীতে আরও ফাইজার ও মডার্নার টিকা দেবে। উপজেলা পর্যায়েও ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. লোকমান হোসেন মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মাহবুব হোসেন, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. খুরশীদ আলম প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, আজ থেকে রাজধানীর ১২টি কেন্দ্রে টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও পর্যাপ্ত সুবিধা না থাকায় ৮টি কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে বলে জানায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

রাজধানীর যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে টিকা দেওয়া হবে সেগুলো হলো- হার্ডকো ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, সাউথপয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজ, চিটাগং গ্রামার স্কুল, আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, মিরপুর কমার্স কলেজ, কাকলি হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সাউথ ব্রিজ স্কুল এবং স্কলাসটিকা স্কুল।

অর্থসূচক/এমএস