অনলাইনের শিক্ষা খরচ পাঠানো যাবে আরও ৬ মাস

অনলাইনে বিদেশে উচ্চশিক্ষার খরচ পরিশোধের সময় আরও ছয় মাস বাড়িয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে আগামী বছরের মার্চ পর্যন্ত দেশে অবস্থিত ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে বিদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনলাইনে পড়ালেখার জন্য টিউশন ফি পাঠাতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। আজ বুধবার (২৭ অক্টোবর) বাংলাদেশ ব্যাংক এ নিয়ে এক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের কারণে এখনো অনেক দেশের সরকার বিদেশ ভ্রমণ বন্ধ রাখায় বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের অনেকেই অনলাইনে পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা চালিয়ে নেওয়ার জন্য আরও দুই সেমিস্টার বা সেশনের ফি বিদেশে পাঠানোর সুযোগ দেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ লক্ষ্যে ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে বিদেশি মুদ্রায় অনলাইনে বিদেশে পড়ালেখার ফি পরিশোধের সময় ২০২২ সালের মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হলো।

জানা গেছে, বিদেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওয়া অনেক ছাত্র করোনার কারণে বিদেশে যেতে পারছে না। ফলে তারা দেশে থেকে অনলাইনের মাধ্যমে পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে আরও দুটি সেমিস্টার বা সেশনের ব্যয় নির্বাহের সুবিধা প্রদান পাঠ-কার্যক্রমকে অব্যাহত রাখতে সাহায্য করবে বলে মনে করছেন অভিভাবকরা।

করোনা ভাইরাসের আক্রমনের পর গত বছরের আগস্ট মাসে দুটি সেমিস্টার বা সেশনের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ পাঠনোর অনুমতি দিয়েছিল বাংলাদেশ ব্যাংক, যা চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত বলবৎ ছিল। এরপর আরও দুটি সেমিস্টার বা সেশনের জন্য প্রয়োজনীয় ফি বাবদ অর্থ গত ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে পাঠানোর সুযোগ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক।

অর্থসূচক/এমএস/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...