অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে কার্যকর উদ্যোগ নিতে বললেন জিএম কাদের

অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র আমদানি রোধ করতে না পারলে জাতির ভবিষ্যৎ ভয়াবহ হয়ে উঠবে। চরম অবনতি ঘটবে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির। অবৈধ অস্ত্রের চালান বন্ধের পাশাপাশি উদ্ধারেও সরকারকে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সম্প্রতি যশোরের এক ছাত্রনেতা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে। গোয়েন্দা সংস্থার কাছে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী গেলো কয়েক বছরে সে একাই সারাদেশে দুই শতাধিক আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রি করেছে। সে বলেছে, পার্শ্ববর্তী একটি দেশের সীমান্ত দিয়ে অভিনব কায়দায় অস্ত্র কীভাবে বাংলাদেশে এনেছে। গোয়েন্দা সংস্থার কাছে আরও বলেছে, অস্ত্র চোরাচালান সিন্ডিকেট বাংলাদেশে কীভাবে অস্ত্র সরবরাহ করে। এর চেয়ে ভয়াবহ খবর আর হতে পারে না।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, এর আগে ইসরাইলের তৈরি অত্যাধুনিক উজি পিস্তলসহ এক মডেলের ছবি ভাইরাল হয়েছে, যা অস্ত্র আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতেও নেই। তাই সমাজের অভিভাবক মহলের মাঝে মারাত্মক আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, দেশের মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দ্রুততার সঙ্গে অবৈধ অস্ত্র আমদানি সিন্ডিকেট ও অস্ত্রবাজদের তালিকা তৈরি করতে হবে। বিশেষায়িত বাহিনী নিয়োগ করে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করতে হবে এবং এর সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে হবে।

অর্থসূচক/এমএস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •