ভারতকে ইনিংস ব্যবধানে হারিয়ে সমতায় ফিরল ইংল্যান্ড

প্রথম ইনিংসে মাত্র ৭৮ রানে অল আউট হলেও দ্বিতীয় ইনিংসে দারুণ প্রতিরোধ গড়েছিল ভারত। তৃতীয় দিন রোহিত শর্মা-চেতেশ্বর পূজারা ও বিরাট কোহলির ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল সফরকারীরা। তবে সেই স্বপ্নে গুঁড়েবালি হয়েছে হেডিংলি টেস্টের চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনে। ভারতের আশার আলো হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা কোহলি ও পূজারা ফিরলে ধস নামে তাঁদের ব্যাটিং লাইন আপে।

নিয়মিত বিরতিতে সাজঘরে ফেরেন আজিঙ্কা রাহানে, ঋষভ পান্ত ও রবীন্দ্র জাদেজারা। যেখানে মাত্র ৬৩ রান তুলতেই ৮ উইকেট হারায় কোহলির দল। অলিভার রবিনসনের দারুণ এক স্পেলে ২৭৮ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। তাতে ইনিংস ও ৭৬ রানের জয়ে সিরিজে সমতায় ফিরল ইংল্যান্ড। এদিন মাত্র ২৫ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়েছেন রবিনসন।

আগের দিনের ২ উইকেটে ২১৫ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। হেডিংলি টেস্টের তৃতীয় দিন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দারুণ প্রতিরোধ গড়েছিল সফরকারীরা। তবে চতুর্থ দিন সকালে পূজারা-কোহলির জমে ওঠা জুটিতে আঘাত হানেন অলিভার রবিনসন। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে পূজারাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন ডানহাতি এই পেসার।

যদিও আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটেলবরো প্রথম নট আউট দিয়েছিলেন। পরবর্তীতে ইংল্যান্ড রিভিউ নিলে আউট হয়ে সাচজঘরে ফিরতে হয় পূজারাকে। তাতে ২০ ইনিংস পর সেঞ্চুরির আশা জাগালেও শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়েছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। ১২ ইনিংস পর হাফ সেঞ্চুরির দেখা পাওয়া পূজারা প্যাভিলিয়নের পথে হেঁটেছেন ৯১ রান করে।

দীর্ঘদিন ধরেই ব্যাট হাতে নিজের সেরা ছন্দে নেই কোহলি। প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে ব্যর্থ ছিলেন তিনি। তবে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরু থেকেই ব্যাট হাতে সাবলীল ছিলেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। তৃতীয় দিন শেষে ৪৫ রানে অপরাজিত থাকা কোহলি হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন। দিনের শুরুতেই তবে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পর ইনিংস বড় করতে পারেননি তিনি।

রবিনসনের লেন্থ বলে এজ হয়ে প্রথম স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা রুটের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটেন ৫৫ রান করা কোহলি। তাতে সেঞ্চুরির খরার সময়টা আরও বাড়লো তাঁর। সর্বশেষ ৫১ ইনিংসে সেঞ্চুরির দেখা পাননি ভারতের এই অধিনায়ক। এরপর রাহানে ও পান্তরা কেউই থিতু হতে পারেননি। রাহানে ১০ ও পান্ত সাজঘরে ফেরেন মাত্র ১ রান করে। এই দুই ব্যাটসম্যানকেই ফেরান রবিনসন।

বোলিংয়ে এসে লর্ডসে হাফ সেঞ্চুরি করা মোহাম্মদ শামিকে আউট করেন মঈন আলি। ইশান্ত শর্মাকে জস বাটলারের গ্লাভসে ক্যাচ বানিয়ে নিজের পঞ্চম উইকেটে তুলে নেন রবিনসন। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো ৫ উইকেটের দেখা পেলেন ২৭ বছর বয়সি এই পেসার।

শেষের কাজটা সারেন ক্রেইগ ওভারটন। রবীন্দ্র জাদেজা ও জসপ্রিত বুমরাহকে ফিরিয়ে ইংল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন ডানহাতি এই পেসার। ইংল্যান্ডের হয়ে রবিনসন পাঁচটি ও ওভারটন নিয়েছেন তিনটি উইকেট। এ ছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন মঈন ও জেমস অ্যান্ডারসন।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...