যুবককে পিটিয়ে হত্যা, পদ্মা সেতু প্রকল্পের ১০ কর্মী আটক

প্রতিনিধি

0
223

মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে পদ্মা সেতু প্রকল্প এলাকায় চোর সন্দেহ জুলহাস হাওলাদার (৩৫) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে নিরাপত্তা কর্মী ও শ্রমিকরা। ঘটনার সঙ্গে জড়িত ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ শুক্রবার (২৭ আগস্ট) ভোর ৬টার দিকে মাওয়া চৌরাস্ত এলাকা সংলগ্ন পদ্মা সেতুর প্রকল্প এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের নিরাপত্তাকর্মী ও শ্রমিক হিসেবে নিয়োজিত কয়েক জন ওই যুবককে পেটান বলে অভিযোগ উঠেছে। খবর পেয়ে জুলহাসের স্বজনেরা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন। পরে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত জুলহাস উপজেলার কুমারভোগ পদ্মা সেতু পুনর্বাসন কেন্দ্রের হাসান হাওলাদারের ছেলে। তিনি অটোরিকশাচালক ছিলেন।

আটক ব্যক্তিরা হলেন— সেতু প্রকল্পে কর্মরত সেলিম, রাব্বি, তপু, আল-আমিন, আরিফ, আব্দুল মান্নান, ইস্রাফিল, রুবেল ও সুশান্ত।

নিহতের স্বজনরা জানান, জুলহাস কীভাবে বাড়ির পাশের পদ্মা সেতু এলাকায় গেলো তা কেউ জানেন না। তাকে আটকে খবর শুনে সেখানে গিয়ে দেখা যায় ১০-১২ জন তার হাত-পা বেঁধে রড় দিয়ে পেটাচ্ছে। পরে সেখান থেকে উদ্ধার করে শ্রীনগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শ্রীনগর-লৌহজং সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান জানান, পদ্মা সেতুর এফ-৪ পিলারের নিচে ওই যুবককে পেটান নিরাপত্তা কর্মীরা। এতে ওই যুবকের মৃত্যু হয়। ঘটনা জানার পরপরই অভিযানে নামে পুলিশ। বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে পদ্মা সেতুর নিরাপত্তাকর্মী ও শ্রমিক হিসেবে নিয়োজিত ১০ জনকে আটক করতে সক্ষম হন তারা।

অর্থসূচক/কেএসআর