কাবুল বিমানবন্দরে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা

0
115
কাবুল বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ বর্তমানে মার্কিন সেনাদের হাতে রয়েছে

বিপদের কারণ আছে, তাই কাবুল বিমানবন্দরে আসতে নিষেধ করা হলো আমেরিকা ও পশ্চিমা দেশের নাগরিকদের। বিমানবন্দর ঘিরে থাকা আফগানদেরও চলে যেতে বলা হয়েছে।

দিন কয়েক আগেই জি-৭ বৈঠকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছিলেন, কাবুল বিমানবন্দরের কাছে আইএসআইএস-কে নামে একটি সংগঠন হামলা করতে পারে। তারা তালেবান বিরোধী। গোলমাল পাকাবার জন্য তারা হামলার চেষ্টা করছে। এরপরই আমেরিকা, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া তাদের নাগরিকদের কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলা নিয়ে সাবধান করে দিয়েছে। তাদের বলা হয়েছে, তারা যেন কাবুল বিমানবন্দর আপাতত এড়িয়ে চলেন।

বিমানবন্দরের বাইরে ঘিরে রয়েছে আফগান জনতা। তারা তালেবান শাসিত আফগানিস্তানে থাকতে চায় না। বাইরের কোনো দেশে যেতে চায়। তাদেরও এলাকা ছেড়ে যেতে বলা হয়েছে।

যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়া সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাবনার কথা বলেছে। আর আমেরিকা তাদের দেশের নাগরিকদের বলেছে, তারা যেন নিজে থেকে বিমানবন্দরে না আসেন। বিমানবন্দরের গেটের বাইরেই বিপদের কারণ আছে। বিমানবন্দরের তিনটি গেটের বাইরে ভিড় করে থাকা আফগানদের অবিলম্বে চলে যেতে বলা হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, বিমানবন্দরে সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাবনা খুবই বেশি। তাই কেউ যেন কাবুল বিমানবন্দরে না যান। যারা বিমানবন্দরের আশেপাশে থাকেন, তারা যেন দূরে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যান এবং পরবর্তী বার্তার জন্য অপেক্ষা করেন।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একই কারণ দেখিয়ে তাদের দেশের নাগরিকদের বলেছে, ‘আপনারা যদি অন্য কোনোভাবে নিরাপদে আফগানিস্তান ছাড়তে পারেন, তা হলে অবিলম্বে সেটা করুন।’ সূত্র: ডিডাব্লিউ, এপি, এএফপি, রয়টার্স

অর্থসূচক/এএইচআর