১৭ মাস পর করোনায় মৃত্যুশূন্য খুলনা

প্রতিনিধি

0
151

খুলনার পাঁচটি হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত বা উপসর্গে কোনো মৃত্যু হয়নি। ফলে প্রায় ১৭ মাস পর করোনায় মৃত্যুশূন্য হলো এ জেলা।

রোববার (২২ আগস্ট) সকাল ৮টা থেকে সোমবার (২৩ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালগুলোর দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা এ তথ্য জানান।

তবে করোনা চিকিৎসা সেবা দেওয়া খুলনার সরকারি তিনটি ও বেসরকারি দুটি হাসপাতালে সকাল পর্যন্ত ১৫৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২১ এপ্রিল খুলনাতে করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রথম রূপসা উপজেলার এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছিল। গত ৯ জুলাই ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল, যা ছিল এ পর্যন্ত খুলনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, এ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় কারও মৃত্যু হয়নি। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৭১ জন। এরমধ্যে রেডজোনে ২৪ জন, ইয়ালোজোনে ১৯ জন, আইসিইউতে ২০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৪ জন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২০ জন।

খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ৪৫ শয্যার করোনা ইউনিটে ২৫ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানিয়েছেন মুখপাত্র ডা. প্রকাশ দেবনাথ। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় এ হাসপাতালে করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি। একই সময়ে দুজন রোগী ভর্তি হয়েছেন। আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ১০ জন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের ৮০ শয্যার করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ছয়জন। এরমধ্যে চারজন পুরুষ ও দুজন নারী। গত ২৪ ঘণ্টায় কোনো রোগী ভর্তি হয়নি আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন একজন।

গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সত্ত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে কোনো মৃত্যু নেই। বেসরকারি এ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৪ জন। নতুন করে ভর্তি হয়েছেন একজন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তিনজন।

সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় কারও মৃত্যু হয়নি। বেসরকারি এ হাসপাতালটির ৯০ শয্যার করোনা ইউনিটে ৩৭ জন ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৯ জন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ছয়জন। আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন আটজন।

অন্যদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় খুমেক পিসিআর ল্যাবে ৩৭৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৬৭ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে খুলনার ৫৭ জন, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরায় একজন করে এবং যশোরের আটজনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়।

অর্থসূচক/কেএসআর