‘যেকোনো স্থাপনায় এডিসের লার্ভা পাওয়া গেলেই ব্যবস্থা’

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
85
ফাইল ছবি

ব্যক্তিগত, সরকারি কিংবা বেসরকারি যেকোনো স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

বুধবার (১১ আগস্ট) গুলশানের নগর ভবন থেকে ডিএনসিসির বিভিন্ন এলাকার সার্বিক অবস্থা সম্পর্কে খোঁজখবর নেওয়ার সময় এ কথা জানান তিনি।

আতিকুল ইসলাম বলেন, নগরীর সুস্থ পরিবেশ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতায় নগরবাসীর স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে গড়ে ওঠা সামাজিক আন্দোলনের ফলেই ডিএনসিসি এলাকায় এখনও ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা তুলনামূলক অনেক কম। নাগরিক সেবায় ‘সবার ঢাকা’ মোবাইল অ্যাপস, জরুরি সেবায় ৩৩৩ নম্বর এবং ডিএনসিসির ০৯৬০২২২২৩৩৩ ও ০৯৬০২২২২৩৩৪ নম্বর হটলাইন চালু রয়েছে। পাশাপাশি নগরবাসীর কল্যাণে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৪৬টি নগর স্বাস্থ্যকেন্দ্রেই ডেঙ্গু রোগের ফ্রি পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এদিকে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে অভিযান অব্যাহত রেখেছে ডিএনসিসি। আজ পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালতে ২টি মামলায় ৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় ৩ নম্বর অঞ্চলের গুলশান এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌফিকুর রহমান পরিচালিত মোবাইল কোর্টে কনকর্ড আইকে টাওয়ারকে ৪ লাখ টাকা এবং এইচএসবিসি ব্যাংককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও ২ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ. এস. এম. সফিউল আজম পরিচালিত মোবাইল কোর্টে ৬টি মামলায় ৩৯ হাজার টাকা, ৫ নম্বর অঞ্চলের ইন্দিরা রোড ও পূর্ব রাজাবাজার এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট যতন মার্মা পরিচালিত মোবাইল কোর্টে ২টি মামলায় ৩০ হাজার টাকা এবং ১০ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ শহিদুল ইসলাম পরিচালিত মোবাইল কোর্টে ২টি মামলায় আরও ১১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

অর্থসূচক/এমএস