পরীমণি-সাকলায়েনের সম্পর্ক তদন্তে পুলিশ সদরদফতরের কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
130

চিত্রনায়িকা পরীমণির সঙ্গে পুলিশ কর্মকর্তা গোলাম সাকলায়েনের সম্পর্কের অভিযোগ ওঠার পর তদন্ত কমিটি করেছে পুলিশ সদর দফতর।

আজ রোববার (০৮ আগস্ট) রাতে পুলিশ সদর দফতরের আইন ও গণমাধ্যম শাখার উপ মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) হায়দার আলী খান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এ কমিটির নেতৃত্বে আছেন একজন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার। কমিটির অন্য সদস্য কারা, তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে ডিএমপি কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, কমিটি গঠনের চিঠি এখনও পাইনি। চিঠি পেলে বিস্তারিত বলতে পারব।

এর আগে শনিবার (০৭ আগস্ট) গুলশান বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) গোলাম সাকলায়েন শিথিলকে ডিবির সব দায়িত্ব থেকে নিবৃত করা হয়। পরে তাকে পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট (পিওএম) পশ্চিমে পদায়ন করা হয়।

পরীমণি গত জুন মাসে বোটক্লাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন অভিযোগ করার পর যে মামলা হয়েছিল, সেটির তদন্তকালে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে যান ডিবির কর্মকর্তা গোলাম সাকলায়েন শিথিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বোট ক্লাবের ১৩ জুনের ঘটনার পর পরীমণি তাকে ধর্ষণচেষ্টা ও শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে অভিযোগ আনলে মামলা হয়। মামলার পরদিনই আসামি হিসেবে ক্লাব নেতা ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদকে রাজধানীর উত্তরার একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তার সঙ্গে গ্রেফতার হন আরও কয়েকজন সহযোগী।

মামলা তদন্তের অংশ হিসেবে পরীমণিকে গোয়েন্দা কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয়। তখনই ডিবির গুলশান বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) গোলাম সাকলায়েন শিথিলের সঙ্গে পরিচয় হয় পরীমণির। এরপর দুজনের মধ্যে শুরু হয় যোগাযোগ। নিয়মিত পরীমণির বাসায় যাতায়াত শুরু করেন গোলাম সাকলায়েন শিথিল। মাঝে-মধ্যেই গাড়ি নিয়ে বের হতেন দুজনে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রের তথ্যানুযায়ী, সবশেষ পরীমণি ডিবির কর্মকর্তা গোলাম সাকলায়েন শিথিলের রাজারবাগের মধুমতি ভবনের বাসায় গিয়ে প্রায় ১৮ ঘণ্টা অবস্থান করেন। ৪ আগস্ট রাতে গ্রেফতারের পর পরীমণি অকপটে স্বীকার করেছেন সবকিছু।

অর্থসূচক/কেএসআর