চট্টগ্রামে করোনায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
138
ফাইল ছবি

চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ১৭ জন মারা গেছেন। একই সময়ে নতুন করে ১ হাজার ১১৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষা বিবেচনায় করোনা শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ৫০ শতাংশ।

আজ শুক্রবার (০৬ আগস্ট) সকালে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো করোনা-সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত ৮৮ হাজার ৬৬০ জন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৬৫ হাজার ৮১২ জন চট্টগ্রাম নগরের বাসিন্দা এবং বাকি ২২ হাজার ৮৪৮ জন চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলার। অন্যদিকে, করোনা আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন এক হাজার ৩৬ জন। এর মধ্যে ৬০৮ জন নগরের এবং বাকি ৪২৮ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

জেলা সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বি বলেন, চট্টগ্রামে করোনায় মৃত্যুর হার এখনও ঊর্ধ্বমুখী। গত ২৪ ঘণ্টায় এখানে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে আটজন নগরের এবং ৯ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের ১১টি ল্যাবে তিন হাজার ৭৭৭টি নমুনা পরীক্ষায় এক হাজার ১১৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৪৮৬, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৭৪৭, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৫৮০, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ২৮৪ এবং আরটিআরএল ল্যাবে ১৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

এর মধ্যে চবি ল্যাবে ২১৯, বিআইটিআইডি ল্যাবে ২৮০, চমেক ল্যাবে ১৪৮, সিভাসু ল্যাবে ১ এবং আরটিআরএল ল্যাবে ১০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া ৭৩৯টি অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় ১৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

অন্যদিকে বেসরকারি ইমপেরিয়াল হাসপাতালে ১৯৯টি নমুনা পরীক্ষায় ৫০, শেভরন হাসপাতাল ল্যাবে ২৬৬টি নমুনা পরীক্ষায় ৬৭, মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৮৯টি নমুনা পরীক্ষায় ২৯, মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতালে ৬১টি নমুনা পরীক্ষায় ৩৪ এবং ইপিক হেলথ কেয়ারে ১১৫টি নমুনা পরীক্ষায় ৫৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া কক্সাবাজার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চট্টগ্রামের ১৯৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ২২ জন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন।

চট্টগ্রামে গত বছরের ৩ এপ্রিল প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ৯ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম কোনো ব্যক্তি মারা যান।

অর্থসূচক/কেএসআর